18 বছর বয়সে স্বামী,পরিবার হারিয়ে 6 মাস বয়সী ছেলেকে নিয়ে লেবুর শরবত বিক্রি করতেন, কঠোর পরিশ্রমে আজ ইনি সিনিয়র ইন্সপেক্টর।

মানুষের জীবনে কষ্ট থাকেই কিন্তু সেই কষ্ট জয় করার নামই জীবন। নিজের জীবনের দুঃখ-দুর্দশাকে বাহানা করে পিছিয়ে পড়া সহজ। কিন্তু কিছু মানুষ এই সহজ পথ অবলম্বন না করে জীবনে এগিয়ে যেতে চায়।

এমনই একজনের কথা আজ আপনাদের বলব। ৩১ বছরের এনি শিবাকে তাঁর স্বামী ১৮ বছর বয়সে ফেলে চলে যায়। সেই সময় তাঁর কোলে ৬ মাসের বাচ্চা ছিল। লাভ মেরেজ হওয়ার কারণে এনির পক্ষে তাঁর বাড়ি যাওয়া সম্ভব ছিল না।

এমতাবস্থায় এনি বাচ্চা কোলে নিয়ে কখনও লেবুর সরবত তো কখনও আইসক্রিম বিক্রি করতেন। এনি এই অবস্থাতেই সারাজীবন কাটাতে চাননি। বর্তমানে এনি কেরলের বর্কলাতে এসআই এর পদে আছেন।

বর্কলা সেই জায়গা যেখানে এক সময়ে এনি সরবত আর আইসক্রিম বিক্রি করতেন। সেই সময়ের কথা মনে পড়লে এনি আজও ইমোশনাল হয়ে পড়েন। নিজের জীবনের কথা বলতে গিয়ে এনি বলেন বর্কলা শিবগিরি আশ্রমের কাছে তিনি অনেক ব্যবসা করেন কিন্তু সব ব্যবসাই তাঁর ফ্লপ হয়ে যায়।

কেরল পুলিশ এনি শিবার এই সংঘর্ষের জন্য নিজেদের অফিশিয়াল টুইটার হেন্ডেলে সিনিয়র ইন্সপেক্টর পদে নিয়োগের জন্য প্রশংসা করেন।

এনি শিবার প্রশংসা করেন কেরলের বিরোধী দলের নেতা বীডী সনীসন। এনি এই পুরুষতান্ত্রিক সমাজের প্রতিটি মহিলার অনুপ্রেরণা। আমরা এনি শিবার প্রশংসা করি যে তিনি তাঁর অবস্থায় পরাজয় স্বীকার না করে লড়েছেন।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.