হুইল চেয়ারেই হেলিকপ্টারে হটাৎ মাঠে নামলেন মম-তা ব্যানার্জি, ভিড় হয়ে দেখলো হাজার হাজার গ্রামবাসী, তু-মু’ল ভাইরাল ভিডিও!

২০১১ সালে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হন মমতা ব্যানার্জি ।শুধুমাত্র রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নয় তার পাশাপাশি স্বাধীন ভারতের প্রথম মহিলা মুখ্যমন্ত্রী হন তিনি ।।তাই জনপ্রিয়তার নিরিখে অন্যান্য মুখ্যমন্ত্রীর তুলনায় তিনি অনেকখানি

এগিয়ে সে কথা নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখেনা প্র । থম দিকে তিনি কংগ্রেসের প্রচার করতেন ।কিন্তু পরবর্তী ক্ষেত্রে তিনি বুঝতে পারলেন যে সেখানে তার পক্ষে থাকা সম্ভব নয় ।

তাই তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে আসেন এবং নিজের একটি দল তৈরি করে এবং সেই দলের নাম দেন তৃণমূল কংগ্রেস । তারপর থেকে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা পেতে শুরু করে এই রাজনৈতিক দলটি ।

এবং রাজ্যের মধ্যে বিরোধী দল হিসেবে পরিচিতি পেতে শুরু করেন । তারপর ২০১১ এর বিধানসভা ভোটে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর জয়লাভ করে তৃণমূল কংগ্রেস এবং মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসেন প্রথমবারের জন্য মমতা ব্যানার্জি ।

কালীঘাটের বস্তি অঞ্চলে বসবাস করতেন তিনি । যোগমায়া দেবী কলেজ এ রাতের বেলায় পড়াশোনা করতেন । সকালবেলায় চলত রাজনৈতিক প্রচার । এর আগে তাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে তৎকালীন শাসক দলের পক্ষ থেকে ।

কিন্তু ব্যর্থ হয়েছে তারা ।এবং কোথাও যেন এই ব্যর্থতা তার শক্তি সঞ্চয় করে তুলছিল এবং সর্বশক্তি নিয়ে ২০১১ সালে বিধানসভা ভোটে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস ও জয়লাভ করেছিল তারপর টানা দশ বছর একইভাবে দখল করেছেন রাজ্যের ক্ষমতা এবং প্রতিনিয়ত জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন তিনি ।

তার এমন বেশ কিছু জনহিতকর কাজ বা প্রকল্প রয়েছে যা পশ্চিমবঙ্গ কে অন্যান্য রাজ্যের তুলনায়ও সর্বশ্রেষ্ঠ প্রমাণ করতে সাহায্য করেছে । এমনকি পশ্চিমবঙ্গ কে বিশ্বদরবারে সম্মানিত করেছে সে সমস্ত প্রকল্প গুলি ।

যেমন কন্যাশ্রী সবুজ সাথী সাথী কিন্তু ২০২১ এর বিধানসভা ভোটের আগে তার ওপর ভয়ঙ্কর হবে আক্রমণ হয় ।। ভেঙে যায় তার পা । কিন্তু দমে যায়নি বাঘিনী । দাপিয়ে বেড়িয়েছে রাজ্যের প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত ।

তার একটি চিত্র ফুটে উঠল সম্প্রতি এই ভিডিওতে। সম্প্রতি ইউটিউবে ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে যে ভোটের প্রচারে হেলিকপ্টারে করে রওনা দিয়েছেন তিনি এবং যেখানে তার সভা ছিল সেখানে হেলিপ্যাডে নামতে দেখা যাচ্ছে তাকে ।

বিশেষভাবে ব্যবস্থা করা হয়েছিল । যেহেতু সেই মুহূর্তে তিনি হুইল চেয়ার এ ছিলেন । তাঁকে একবার চোখের দেখা দেখতে ভিড় করেছিলেন এলাকার প্রচুর মানুষ । প্রত্যেকের হাতে ক্যামেরা । প্রত্যেকেই চাই সুন্দর মুহূর্তে ক্যামেরাবন্দী করতে । ইতিমধ্যে ভিডিও পুনরায় জনপ্রিয়তা পেয়েছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.