মাত্র ১০ হাজারের বিনিয়োগে পেয়ে যান ১৬ লাখ টাকা, দুর্দান্ত স্কিম পোস্ট অফিসে

Sabbir Rahman 0

সাল ২০২০, এই বছরটা অন্যান্য বছরের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন। করো’না সব কিছু ধ্বং’স করে দেওয়ার দায়। কিন্তু মানুষও হারতে শেখেনি। এই করো’না যেমন মানুষের প্রাণ কেড়েছে ঠিক তেমনি কেড়েছে বহু মানুষের রোজগার।

আজ বহু মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। সেভিংস ভাঙিয়ে সংসার চালাতে ক্লান্ত। আর এই ফাঁ’কে এল এক নতুন সুখবর। মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তদের মুখে হাসি ফুটলেও ফুটতে পারে। কি সেই সুখবর তাই তো।

এতদিন আপনারা কোনো না কোনো ব্যা’ঙ্কে টাকা রাখতেন। কিন্তু দিন দিন ব্যা’ঙ্কের সুদ কমেই চলেছে। তাই পোস্ট অফিস গু’লো নিল নতুন উদ্যোগ৷ দেখা যাক একনজরে। পোস্ট অফিসের স্কিমে ইনভেস্ট করলে মিলবে একাধিক সুবিধা ৷

আর সবচেয়ে গু’রুত্বপূর্ণ ব্যপার হল এখানে যদি আপনি টাকা ইনভেস্ট করেন তাহলে সেই টাকা সুরক্ষিত থাকবে এবং অন্যান্য জায়গার তুলনায় বেশি সুদ অর্থাৎ রিটার্ন মিলবে ৷ এতে কিন্তু কোনরকম রিস্ক নেই।

ভালো রিটার্ন পেতে চাইলে পোস্ট অফিসেই ইনভেস্ট করা একেবারে বু’দ্ধিমত্তার কাজ ৷ পোস্ট অফিসে একাধিক স্কিম রয়েছে৷ আপনি আপনার সুবিধামতো যে কোনো স্কিমে টাকা রাখতে পারেন।

যদি আপনি প্রতি মাসে ১০,০০০ টাকা ইনভেস্ট করতে পারেন তাহলে তা হলে ১৬ লক্ষেরও বেশি টাকা পেতে পারেন। আর এই রেকারিং ডিপোজিট যখন ম্যাচিওরিটির সময়ে আসবে তখন প্রায় ১৬.২৮ লক্ষ টাকা পাওয়া যাব’ে।

তবে একটা বি’ষয় মাথায় রাখতে হবে আপনাকে। যদি যথাসময়ে আপনি এই রেকারিং ডিপোসিটে RD ইনস্টলমেন্ট ডিপোজিট না করা হয়, তা হলে কিন্তু ফাইন লাগবে ১০,০০০ টাকা।

এ ক্ষেত্রে ইনস্টলমেন্টে দেরি হলে প্রতি মাসে এক শতাংশ (১০০ টাকায় ১ টাকা) করে পেনাল্টি হিসেবে দিতে হবে। তাহলে ১০,০০০ টাকাতে ১০০০টাকা পেনাল্টি। এর পাশাপাশি যদি পর পর চারটি ইনস্টলমেন্ট জমা না দেওয়া হয়, তা হলে অ্যাকাউন্টটাই বন্ধ হয়ে যাব’ে।

তবে একবার অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে গেলে, পরের দু’মাসের মধ্যে আবার অ্যাক্টিভেট করা যেতে পারে অ্যাকাউন্টটি। এছাড়া আপনি পোস্ট অফিসে ১০ বছর অ্যাকাউন্ট না খুলতে পারলেও কমপক্ষে পাঁচ বছরের জন্য একটি RD অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

জমা টাকার উপরে প্রতি কোয়ার্টারে সুদের হিসেব হবে। এর পর প্রতি কোয়ার্টার শেষে কমপাউন্ড ইন্টারেস্ট হিসেবে আপনার অ্যাকাউন্টে টাকাটি পাঠানো হবে। পোস্ট অফিসের ওয়েবসাইট অনুযায়ী, এই নতুন স্কিমে বর্তমানে সুদের হার ৫.৮ শতাংশ।

এই বছর জুলাই মাস থেকেই প্রযোজ্য হয়েছে সংশ্লিষ্ট সুদের হার। তাহলে আর দেরী কিসের নতুন মাসে পোস্ট অফিসে এই রেকারিং ডিপোজিট অ্যাকাউন্ট খুলে ফেলুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *