২০০ বছরেও পদ্মাসেতুর পিলারের কিছু হবে না

আগামী ২০০ বছরেও পদ্মাসেতুর পিলারের কিছু হবে না বলে জানিয়েছেন পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, চার হাজার টন জাহাজও পদ্মাসেতুর পিলারে ধাক্কা দিলে জাহাজই ক্ষতিগ্রস্ত হবে, তবু পিলারের কিছু হবে না।

এছাড়া যেকোনো নৌযানও ধাক্কা দিলে মূলত নৌযানেরই ক্ষতি হবে। এভাবেই পদ্মাসেতুর পিলার বানানো হয়েছে। শুক্রবার মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়ার কাছে পদ্মাসেতুর পিলারে ধাক্কা লেগে একটি ফেরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এ ঘটনায় ২৫ জন আহত হয়েছেন। আহতরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এদিন সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মাদারীপুরের বাংলাবাজারঘাট থেকে শিমুলিয়ায় আসার পথে পিলারে ধাক্কা দেয় ফেরি শাহ জালাল।

এ ঘটনায় ওই ফেরির ইনচার্জ ইনল্যান্ড মাস্টার অফিসার আব্দুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা, সেই ফেরির মাস্টার পুলিশ হেফাজতে আব্দুর রহমান পদ্মাসেতুর ১৭ নম্বর পিলারের সঙ্গে ধাক্কার ঘটনায় রোরো ফেরি শাহ জালালের ইনচার্জ ইনল্যান্ড মাস্টার আব্দুর রহমানকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

শনিবার সকালে বাংলাবাজার ঘাট এলাকা থেকে তাকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। জানা গেছে, শুক্রবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে পদ্মা সেতুর ১৭ নম্বর পিলারের সঙ্গে রোরো ফেরি শাহ জালালের ধাক্কা লাগে।

এসময় ফেরিতে থাকা যাত্রীরা ছিটকে একে অপরের ওপর পড়ে আহত হন। কমপক্ষে ২০ জন যাত্রী এসময় মারাত্মক আহত হন। এ ঘটনায় ফেরিটির ফিটনেস ছিল কি না, চালকের যথাযথ যোগ্যতা,

শারীরিক সুস্থতা বা অবহেলা ছিল কি না এইসব বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়ে শিবচর থানায় শুক্রবার সন্ধ্যায় সেতু বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় জিডির পর শনিবার সকালে চালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশি হেফাজতে নেয়া হয়। শিবচর থানার ওসি মিরাজ হোসেন বলেন, থানায় ডিডি হওয়ার পরে আমরা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছি।

আর এই তদন্তের স্বার্থেই আমরা রোরো ফেরি শাহ্ জালালের ইনচার্জ ইনল্যান্ড মাস্টার অফিসার আবদুর রহমানকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা পদ্মাসেতুর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। বর্তামানে চালক আমাদের হেফাজতে আছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.