কঠোর লকডাউন আর না বাড়ানোর চিন্তাভাবনা করছে সরকার

চলমান কঠোর লকডাউন ৫ আগস্টের পর আর না বাড়ানোর চিন্তাভাবনা করছে সরকার। এর পরিবর্তে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে কঠোর নজরদারি করা হবে এবং গ্রামে গ্রামে গণটিকা কর্মসূচি চালানো হবে।

সরকারের সংশ্নিষ্ট একটি দায়িত্বশীল সূত্র গতকাল রোববার সমকালকে এ তথ্য জানিয়েছে। কঠোর লকডাউনের কারণে দেশের অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব এবং সাধারণ মানুষের জীবিকার বিষয়টি বিবেচনায় রেখে সরকার চলমান কঠোর লকডাউন আপাতত না বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়েছে।

এ ক্ষেত্রে টিকা সরকারকে ভরসা জোগাচ্ছেবিভিন্ন দেশ থেকে টিকা সরবরাহের নিশ্চয়তা পাওয়া যাচ্ছে। এর ফলে সামনের দিনগুলোতে গণটিকা কর্মসূচি চালাতে আর সমস্যা হবে না বলে আশা করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে আগামী বুধবারের মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসবে বলে ওই সূত্র জানায়। তবে কভিড-১৯ মহামা’রি মোকাবিলায় গঠিত জাতীয় পরাম’র্শক কমিটি চলমান কঠোর লকডাউন আরও বাড়ানোর পক্ষে মতামত দিয়েছে।

কারণ সংক্রমণ ও মৃ’ত্যু এখন পর্যন্ত কমেনি। একই সঙ্গে ব্যাপক ভিত্তিতে গণটিকা কার্যক্রম চালানোরও পরাম’র্শ দিয়েছে কমিটি।এ দিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক

গতকাল রোববার মহাখালীর বিসিপিএস (বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস) মিলনায়তনে ২০২০-২১ শিক্ষবর্ষে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরুর অনুষ্ঠানে বলেছেন,

আগামী ৭ থেকে ১৪ আগস্ট পর্যন্ত অন্তত এক কোটি মানুষকে করো’নার টিকা দেওয়া হবে। ইউনিয়ন বা ওয়ার্ড পর্যায় থেকে শুরু করে রাজধানী পর্যন্ত এ সময় ব্যাপকভিত্তিক টিকাদান কার্যক্রম চলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.