নিজের PMAY -র টাকা না পাওয়ায় পঞ্চায়েতে উপস্থিত হলেন শালতোড়ার বিধায়ক চন্দনা বাউরি! তুমুল ভাইরাল ভিডিও।

এবার প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা টাকা সঠিক মতন পেলেন না বিজেপি বিধায়ক চন্দনা বাউরি । একদম ঠিক শুনেছেন আমরা জানি যে বিধানসভা ভোটের আগে বাংলা এবং বহিরাগত তত্ত্ব নিয়ে রীতিমতো উত্তপ্ত ছিল গোটা রাজ্য।

একদিকে তৃণমূল কংগ্রেস এবং অন্যান্য জাতীয়তাবাদী সংগঠনগুলি দাবি করেছিলেন যে বিজেপি বাংলা বিরোধী । এই দাবি-দাওয়া দিক থেকে সবার আগে এই বহিরাগত তত্ব প্রথমেই খাড়া করেছিল রাজ্যের বুকে বাংলাপক্ষ নামে একটি সংগঠন ।

কিন্তু কোনো কোনো ক্ষেত্রে দেখা গেছে সেই তত্ত্বকে ভুল প্রমাণ করে দিয়েছে নবনির্বাচিত বিধায়কেরা । একদমই ঠিক শুনেছেন।শালতোড়া বিধানসভা তে বিজেপি প্রার্থী হয়েছিলেন চন্দনা বাউরী ।

যদিও রাজ্যের মানুষ এমনটা মনে করতেন যে যেহেতু তারা অনুন্নত শ্রেণীর মানুষ তাই তাকে কিছুতেই ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেনা । কিন্তু সেই ভাবনাচিন্তা কে সম্পূর্ণ রকমভাবে পাল্টে দিয়েছে মানুষজন ।

বিপুলসংখ্যক ভোটে জয়লাভ করেছিল চন্দনা দেবী । তারপর থেকেই বিধায়ক হয়েছেন । কিন্তু বিধায়ক হবার পর থেকে সরকার নাকি অর্থাৎ কেন্দ্রীয় সরকার নাকি তাকে কোনো রকম কোনো সহযোগিতা করেনি এমন অভিযোগ উঠেছে ।

এবার প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ঘরের টাকা পায়নি সেই চন্দনা দেবী ।। তাই ব্লক অফিসে গিয়ে হাজিরা দিলেন তিনি । যেহেতু তিনি এলাকার বিধায়ক । তাই এলাকার উন্নয়নের দিকে নজর রাখা উচিত ।

তার কথামতো বিভিন্ন জায়গাতে জলের কলের অসুবিধা হচ্ছে । কোন কোন জায়গায় খারাপ হয়ে পড়ে রয়েছে । সেই সমস্ত অভিযোগগুলি নিয়ে তিনি সেদিন ব্লক অফিসে গিয়েছিলেন ।

তার সাথে সাথে তিনি এটাও জানান যে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা টাকা গত ২০১৮ সাল থেকে তার অ্যাকাউন্ট এ কোন রকম ভাবে আসছে না । একবার তার অ্যাকাউন্টে ভুল ছিল । কিন্তু পরবর্তী ক্ষেত্রে সে সূত্রে নিয়েছে তার সেই ভুলকে ।।

কিন্তু তবুও আসছেনা কেন আসে না সে বিষয়ে খতিয়ে দেখতে তিনি ওই দিন সেখানে হাজির হয়েছিল যদিও এই সমস্ত ঘটনা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে চর্চা শুরু হয়েছে আবার। ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.