রাজের ‘ছায়াতলে’ থেকেই অ’পকর্ম চালাচ্ছিলেন পরীমনি-পিয়াসা-মৌ!

রাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার চলচ্চিত্র প্রযোজক নজরুল ইস’লাম রাজের ছায়াতলে থেকেই সব ধরনের অ’পকর্ম করে যাচ্ছিলেন চিত্রনায়িকা পরীমনি, বিতর্কিত মডেল ফারিয়া মাহবুব পিয়াসা ও মৌ আক্তার!

রাজের সমন্বয়ে এই চক্রের সদস্যরা লেটনাইট পার্টির নামে ম’দ-মা’দক ও নাচের আসর বসাতেন। এরপর সমাজের প্রভাবশালী, শিল্পপতি, বিত্তবান ব্যবসায়ী ও উচ্চবিত্তের সন্তানদের মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ ও

স্থির ছবি তুলে ব্ল্যাকমেইলিং করে মোটা অংকের টাকা আদায় করতেন। র‌্যা’­বের অ’তিরিক্ত মহাপরিচালক (অ’পারেশনস) কর্নেল কে এম আজাদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত রোববার রাতে রাজধানীর বারিধারা একটি ফ্ল্যাট থেকে বিপুল মা’দকসহ গ্রে’ফতার করা হয় কথিত মডেল পিয়াসাকে। এরপর গভীর রাতে মোহাম্ম’দপুরে মডেল মৌ আক্তারের বাসায় অ’ভিযান চালায় গোয়েন্দা পু’লিশ।

সোমবার তাদের বি’রুদ্ধে মা’দক আইনে গুলশান মা’মলার তিনদিন করে রি’মান্ড মঞ্জুর করেন আ’দালত।এরপর মঙ্গলবার সকালে পিয়াসার প্রধান সহযোগী মিশু হাসানকে গ্রে’ফতার করে র‌্যা’­ব।

তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের পর বুধবার রাজ ও পরীমনিকে আ’ট’ক করা হলো। বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে বনানীর ৭ নম্বর সড়কে নজরুল ইস’লাম রাজের কার্যালয়ে অ’ভিযান শুরু করে র‌্যা’­বের একটি দল।

পরে তাকে আ’ট’ক করা হয়। এ সময় তার কার্যালয় থেকে বিপুল পরিমাণে বিদেশি ম’দ, ইয়াবা বড়ি, সেক্স টয় উ’দ্ধার করা হয়। এর আগে চিত্রনায়িকা পরীমনিকে আ’ট’ক করে র‌্যা’­ব সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়।

পরীমনিকে আ’ট’কের পরই রাজের বাসায় অ’ভিযান শুরু করে র‌্যা’­ব। এরপর রাত পৌনে ১২টায় তাকেও র‌্যা’­ব সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়। র‌্যা’­বের অ’তিরিক্ত মহাপরিচালক (অ’পারেশনস) কর্নেল কে এম আজাদ বলেন,

রাত সাড়ে ৮টার দিকে বনানীর ৭ নম্বর সড়কে নজরুল ইস’লাম রাজের কার্যালয়ে অ’ভিযান শুরু করে র‌্যা’­বের একটি দল। পরে তাকে আ’ট’ক করা হয়। তার কার্যালয় থেকে বিপুল পরিমাণে বিদেশি ম’দ, ইয়াবা বড়ি, সেক্স টয় উ’দ্ধার করা হয়। রাত পৌনে ১২টায় তাকে র‌্যা’­ব সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, আ’ট’ক পরীমনি, পিয়াসা, মৌ এবং তাদের সহযোগী শরফুল হাসান (শুভ) এরা সবাই নজরুল রাজের ছাতার তলায় থেকে অ’পকর্ম চালিয়ে যাচ্ছিল।

নজরুল রাজের সমন্বয়ে চক্রের সদস্যরা লেটনাইট পার্টির নামে ম’দ-মা’দক ও নাচের আসর বসিয়ে সেখানে আসা সমাজের প্রভাবশালী, শিল্পপতি, বিত্তবান ব্যবসায়ী ও উচ্চবিত্তের সন্তানদের মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ

ও স্থির ছবি তুলে ব্ল্যাকমেইলিং করে মোটা অংকের টাকা আদায় করতেন। ব্ল্যাকমেইলিং এই চক্রে জ’ড়িত অন্যদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.