পরীমনির ঘটনায় যে কারণে এখনই কোনো বক্তব্য দিতে চান না মিশা–জায়েদ

চলচ্চিত্রশিল্পীদের অভিভাবক সংগঠন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। এ সংগঠনের তালিকাভুক্ত চিত্রনায়িকা পরীমনি। ৪ আগস্ট তাঁকে বাসা থেকে মাদকসহ আটক করা হয়েছে।

এ ঘটনায় এখনো কোনো আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দিতে রাজি নয় চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর বলেন, ‘গতকাল থেকেই আমরা ঘটনাটি সম্পর্কে অবগত রয়েছি।

সংগঠনের কার্যনির্বাহী পরিষদের সঙ্গে কথা হয়েছে। ঘটনাটা এখন আইনের মধ্যে গড়িয়েছে। শুনলাম মামলা হবে। দেশের আইনে তাঁর (পরীমনির) বিরুদ্ধে হয়তো কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কে কীভাবে নেবে, কেউ ভুলও বুঝতে পারে—এসব কারণে এ ঘটনায় ব্যক্তিগতভাবে কোনো মন্তব্য করতে চাই না। এ জন্য ঘটনা পর্যবেক্ষণ করে দু–এক দিনের মধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে সংগঠন থেকে প্রতিক্রিয়া জানাব।’

অন্যদিকে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান বলেন, ‘পরীমনির বিরুদ্ধে সুস্পষ্ট কী ধরনের অভিযোগ ও মামলা আনা হয়, সেটা দেখেই সিদ্ধান্ত নেব। আমরা হুট করেই কিছু বলতে পারি না।

’ এ সময় জায়েদ খান আরও বলেন, ‘কারও ব্যক্তিগত ঘটনার দায় সংগঠন নেবে না। এখন কেউ বাইরে গিয়ে কী অপরাধ করল, সেটা আমরা দেখার কেউ না।

এটা দেখার দায়িত্ব আইন, আদালতের। আমাদের সিনিয়র অভিনয়শিল্পী যাঁরা আছেন—রোজিনা আপা, অঞ্জনা আপা, অরুণা দিদি, রুবেল ভাই, ডিপজল ভাই, মিশা ভাই সবার সঙ্গে প্রাথমিক কথাবার্তা হয়েছে।

সেখানে সবার মন্তব্য জানার চেষ্টা করেছি। এ ছাড়া আমাদের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আলমগীর ভাই, উজ্জ্বল ভাই, সোহেল রানা ভাই, ইলিয়াস কাঞ্চন ভাই, মাসুম বাবুলসহ সিনিয়র সবার সঙ্গে আমরা কথা বলব।

তার পরে সংগঠনের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করে সিদ্ধান্ত জানাব। পরীমনির ঘটনায় এখনো আমাদের কথা বলার সময় আসে নাই।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.