আ’দালতে প্রবেশ করে পরীমণি তার কোনো এক স্বজনকে জড়িয়ে ধরেন

আ’লোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণি, তার ব্যবস্থাপক আশরাফুল ইস’লাম ওরফে দীপু, প্রযোজক নজরুল ইস’লাম রাজ ও তার তার ব্যবস্থাপক মো. সবুজ আলীকে মা’দক মা’মলায় চারদিন করে রি’মান্ডে নিয়েছে পু’লিশ।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) রাতে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আ’দালতের বিচারক মামুনুর রশীদ তাদের চারদিন করে রি’মান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত ৮টা ২৬ মিনিটে তাদের ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আ’দালতে হাজির করে সাতদিন করে রি’মান্ডের আবেদন করেন মা’মলার ত’দন্ত কর্মক’র্তা। শুনানি শেষে বিচারক তাদের চারদিন করে রি’মান্ডের আদেশ দেন।

রাত ৮টা ২৫ মিনিটের দিকে পরীমণি ও রাজসহ চারজনকে আ’দালতে হাজির করা হয়। আ’দালতে প্রবেশ করে পরীমণি তার কোনো এক স্বজনকে জড়িয়ে ধরেন।

এরপর আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের দুজনকে আলাদা করে দিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে। এর কিছুক্ষণ পরে বিচারক এজলাসে আসেন এবং রি’মান্ড ও জামিন শুনানি শুরু হয়।

শুনানির শুরু থেকেই পরীমণি আ’দালতে নিশ্চুপ ছিলেন। তার চোখে মুখে হতাশার ভাব ছিল। কিন্তু তার সঙ্গী রাজকে স্বাভাবিক থাকতে দেখা গেছে।

আ’দালতে রাজ তার আইনজীবী এবং বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে কথা বলেছেন কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে। কিন্তু পরীমণি ছিলেন একদম আলাদা। তিনি সারাক্ষণ নিশ্চুপ ছিলেন।

কাঠগড়ায় কেমন ছিলেন পরীমণি?শুনানি শেষ হয় রাত ৯টা ৮মিনিটে। শুনানি শেষে পরীমণিকে আ’দালতের এজলাস থেকে নিয়ে যাওয়া হয়। সূত্র জানায়, আ’দালতে ৪২ মিনিটের পুরোটাই চুপ ছিলেন পরীমণি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.