খোঁজ মিলল পরীর আরেক স্বামীর

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমণি আটকের পর থেকেই একের পর এক গোপন তথ্য ফাঁস হচ্ছে। এবার বেশকিছু গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে তার প্রথম স্বামীর নাম।

এর আগে ৩ জনের সঙ্গের বিয়ের খবর সামনে এলেও তারও আগে একটি বিয়ে করেছিলেন পরীমণি। সেটিই ছিল এই নায়িকার প্রথম বিয়ে। কয়েকটি অনলাইন গণমাধ্যমে পরীমণির প্রথম সেই বিয়ের খবর প্রকাশ হয়েছে।

জানা গেছে, বিলাসবহুল জীবনে অভ্যস্ত নায়িকা পরীমণি পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার ইকড়ি ইউনিয়নের শিংখালী গ্রামে মামার বাড়িতে থেকে বড় হয়েছেন। তার প্রকৃত নাম শামসুন নাহার স্মৃতি।

তার নানারা আর্থিকভাবে অসচ্ছল ছিলেন। সেখানে এসএসসি পাসের পর খালাত ভাইয়ের সঙ্গে প্রথম বিয়ে হয় পরীর। বিষয়টি নিয়ে পরীর নানা শামসুল হক গাজী জানান, মূলত পরীমণির মায়ের মৃত্যুর পর তাকে আমাদের বাড়িতে নিয়ে আসি।

আমাদের বাড়িতে থেকে স্থানীয় স্কুলে লেখাপড়া করে সে। পরী খুব মেধাবী ছিল। গরিব হওয়ায় কোনো প্রাইভেট পড়তে পারেননি। তারপরও সে ভগিরাতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেণিতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়েছিল।

তবে এসএসসিতে প্রথমবার ফেল করলেও দ্বিতীয়বার পাস করে সে। পরবর্তীতে স্থানীয় একটি কলেজে ভর্তি হলেও বরিশালে থাকা খালাতো ভাই ইসমাইল হোসেনের সঙ্গে বিয়ে হয়।

সেখানে ২ বছরের দাম্পত্য জীবনের পর বিচ্ছেদ হয়। বলছিলেন পরীর নানা। এ ব্যাপারে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, পরীর প্রথম বিয়ে ভেঙেছিল উচ্ছৃঙ্খল জীবনযাপনের জন্য।

এর মধ্যে ২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে দৈনিক নয়া দিগন্তের এক বিনোদন সাংবাদিককে বিয়ে করে সংসার পাতেন তিনি। পরের বছর ভালোবাসা দিবসে ভেঙে যায় সেই বিয়ে।

২০২০ সালে তিন টাকা কাবিনে পরীমনি বিয়ে করেন নির্মাতা কামরুজ্জামান রনিকে। একই বছর তাদের বিচ্ছেদ হয়। এছাড়া একজন ফুটবলারকে বিয়ের খবরও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিসহ ভেসে বেড়িয়েছে।

তার নাম ফেরদৌস কবীর সৌরভ। বাড়ি যশোরের কেশবপুরে। তিন বছর প্রেম করার পর ২০১২ সালের ২৮ এপ্রিল বিয়ে করেছিলেন তারা। ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে পরী ও সৌরভের কয়েকটি ঘনিষ্ঠ ছবি ছড়িয়ে পড়েছিল ফেসবুকে। তখন বিয়ের কাবিননামার একটি কপিও ভাইরাল হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.