গরুর বাছুর বিক্রি করে আয় হয় প্রায় ২ লাখ ১০ হাজার টাকা

ছাগল ও গরু পালনে কোটিপতি হয়েছেন লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার মেঘনা নদী অধ্যুষিত চরাঞ্চল এলাকার উত্তর চরবংশী ইউনিয়নের চরবংশী গ্রামের রাসেল ঢালি ডেইরি ফার্ম এর মালিক তরুণ উদ্যোক্তা রাসেল।

ইতোমধ্যে তিনি এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছেন। ১২ বছরে আগে একটি ছাগল নিয়ে খামার শুরু করলেও এখন তার খামারে ছাগলের সংখ্যা ৫০টি। এছাড়াও রয়েছে ২৫টি গরু। তার এই সফলতা দেখে অনেকেই ছাগল ও গরু পালনে আগ্রহী হয়ে উঠছেন।

জানা যায়, ১২ আগে জমানো ২০ হাজায় টাকায় একটি ছাগল পালনের মাধ্যমে খামার শুরু করেছিলেন। সঠিকভাবে যত্ন নেওয়ার ফলে দিন দিন তার খামারে ছাগলের সংখ্যা বাড়তে থাকে।

বর্তমানে তিনি প্রায় ৪০ শতাংশ জমির উপর গরু পালন, দুধ বিক্রি, গোবর, বায়োগ্যাস প্লান্ট, কেঁচো দিয়ে জৈবসার প্রস্তুত করে একজন তরুণ উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

ছাগল পালনের ব্যাপারে তার কাছ থেকে এখন অনেকেই পরামর্শ নিচ্ছেন বলে রাসেল জানান। রাসেল বলেন, মূলত শখের বসে জমানো টাকা দিয়ে একটি ছাগল কিনে খামারটি শুরু করি।

এসব ছাগল থেকে বাচ্চা হতে হতে খামারে ছাগলের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে। এরপর নিজ উদ্যোগে ২০১০ সালে খামারে ফ্রিজিয়ান জাতের একটি গাভী পালন শুরু করি । বর্তমানে ১৫টি গাভী থেকে ১০০ লিটার দুধ বিক্রি করা হয় ১৫ হাজার টাকায়।

খামারের বাছুরই হলো লাভের অংশ। বছর শেষে ৪০টি বাচ্চা হয় সাধারণত। বাছুর থেকে আয় হয় প্রায় ২ লাখ ১০ হাজার টাকা।রায়পুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান,

ছাগল ও গরু পালনে রাসেলের সাফল্যের কথা আমরা শুনেছি। তার খামার উন্নয়নে আমরা তাকে সহযোগিতা করছি। তার মতো যে কেউ ছাগলের খামার করতে চাইলে আমরা সব ধরণের সহযোগিতা করবো।

তথ্যসূত্রঃ আধুনিক কৃষি খামার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *