একসময় ফুটপাথে শুয়েও রাত কাটিয়েছেন! আজ ভারতের প্রথম কিন্নর বিচারপতি জয়িতা

আমাদের সমাজ যতই এগিয়ে যাক না কেন এখনো পর্যন্ত এমন কিছু জিনিস রয়েছে বা বিষয় রয়েছে যেগুলো সম্পর্কে আমরা জানতে পারলে বা জানলে নাক সিঁটকায় ।যেমন ধরুন বৃহন্নলা অর্থাৎ খুব সহজ ভাষায় বললে হিজরে ।

রাস্তাঘাটে যদি কখনো আমরা হিজড়াদের দেখে থাকি তাহলে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে থাকি । এরা সাধারণ মানুষের মতন দেখতে হলো এদের আচরণ বা আদব-কায়দা সাধারণ মানুষের মতন নয় যার জন্য সমাজ এদের কে ঠেলে দিয়েছে অন্ধকারে ।

সমাজে যাবতীয় যা কিছু ঘটে সেগুলো থেকে বঞ্চিত থাকে তারা । কিন্তু কখনো কখনো এমনও দেখা গেছে যে সেই সমস্ত মানুষরা ঘুরে দাঁড়িয়ে পাল্টে দিয়েছে সমাজের চিত্রটা । জয়িতা মন্ডল তাদের মধ্যে একজন ।

তিনি ছোটবেলা থেকেই তার পরিবারের কাছ থেকে অবহেলা পেয়েছেন । তারপর বাসস্ট্যান্ডে বহুদিন রাত কাটিয়েছে ।ভিক্ষা করে জীবন যাপন করেছেন । মাধ্যমিক পড়ার পর আর পড়াশোনা করা হয়নি ।

অবশেষে উত্তরদিনাজপুর ইসলামপুর তিনি একটি সংস্থা খোলেন এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়ে সাধারণ মানুষের জন্। । এরপর তিনি উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরে চলে যান। ইসলামপুরে যাওয়ার পর তিনি ট্রান্সজেন্ডার কমিউনিটিতে কাজ করতে শুরু করেন।

এর পাশাপাশি তিনি তার পড়াশোনাটাও শেষ করতে থাকেন। ২০১০ সালে তিনি ল-এর ডিগ্রি অর্জন করেন। ২০১৭ সালের ৮-ই জুলাই প্রথম কিন্নর বিচারপতি হিসেবে জয়িতা মন্ডল উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুর লোক আদালতে যান।

তিনি হলেন এই বাংলার প্রথম কোন নয় যিনি বিচারপতি হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন তার এই সাফল্যে কে কুর্নিশ জানিয়েছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা মানুষেরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *