‘আমি মোটা হয়ে গেছি বলে শ্রাবন্তী আমার প্রতি আকর্ষণ হারিয়ে ফেলেছে’; বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন শ্রাবন্তীর তৃতীয় স্বামী রোশন সিং।

টলিউডের মিষ্টি কিন্তু বিতর্কিত নায়িকা হিসেবে পরিচিত শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। শ্রাবন্তীকে যাঁরা চেনেন তাঁরা সকলেই জানেন মন দেওয়া-নেওয়ার ক্ষেত্রে একটুও দেরি করেননা অভিনেত্রী।

প্রথমবার মাত্র 16 বছর বয়সে বাড়ি থেকে পালিয়ে পরিচালক রাজীব কুমার বিশ্বাসকে বিয়ে করেছিলেন তিনি। এই বিয়ে থেকে তার একটি পুত্র সন্তান জন্ম হয়।পরবর্তী সময় 2016 সালে পরকীয়া সম্পর্কের অভিযোগে বিবাহ বি-চ্ছে-দ হয়ে যায় অভিনেত্রীর।

এরপর কিছুদিনের মধ্যেই একটি উঠতি মডেল কে বিবাহ করেন নায়িকা। কিন্তু সেই বিয়েও টিকিয়ে রাখতে পারেননি তিনি। এমতাবস্থায় 2019 সালে রোশন সিং কে বিয়ে করেন শ্রাবন্তী। বেশ ভালই চলছিল তাদের সম্পর্ক।

কিন্তু আচমকাই গত বছর দুর্গা পুজোর সময় থেকে তাদের সম্পর্কে ভা-ঙ্গ-ন দেখা দেয়। বাড়ির ছাদ আলাদা হয়ে যাওয়ার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতে থেকেউ একে অপরকে আনফলো করে দেন তারা।

শুধুমাত্র তাই নয় নিজেদের বিয়ের সমস্ত ছবি ডিলিট করে দেন এই তারকা দম্পতি।সম্প্রতি কিছুদিন ধরেই আবারও বেকারির ব্যবসায়ী অভিরূপ নাগ চৌধুরীর সাথে শ্রাবন্তীর সম্পর্কের গুঞ্জন সবজায়গায় ছড়িয়ে পড়েছিল।

অভিরূপ এর সাথে সম্পর্কে যাওয়া প্রমাণ করে দিয়েছে যে রোশন সিং এর সাথে আর সংসার করতে ফেরত যেতে চান না অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়।কিন্তু তৃতীয় বিয়ে ভাঙার পরেও যেভাবে তিনি নিজেকে সামলে রেখেছেন তা অবাক করার মত বিষয়।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায়শ্রাবন্তীর তৃতীয় স্বামী রোশন সিং এর একটি বক্তব্য বেশ ভাইরাল হয়ে উঠেছে।এই বক্তব্যে শ্রাবন্তীর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ এনেছেন স্বামী রোশন সিং।

প্রথমেই রোশন সিং নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে জানিয়েছেন, সঙ্গী দ্বিচারিতা করলে তাকে এড়িয়ে যাওয়াই শ্রেয়। এখানে সঙ্গী বলতে সম্ভবত তিনি স্পষ্ট ভাবে শ্রাবন্তীর কথা বলতে চেয়েছেন।

এরপরেই রোশান বলেছেন, তিনি মোটা হয়ে যাওয়ায় শ্রাবন্তী আর তার প্রতি আকর্ষণ অনুভব করেন না। তাই বারবার সম্পর্ক ঠিক করতে চেয়ে কোর্টের দ্বারস্থ হলেও শ্রাবন্তী আর ফেরত আসতে চাননি।

বরং তার জায়গায় অন্য সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন অভিনেত্রী। এখনো পর্যন্ত রোশনের এই মন্তব্যের কোন প্রতুত্তর জানাননি শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। নিজের জিম এবং অভিনয় জগত নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন নায়িকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *