রেল লাইনের উপর তুমুল ল’ড়াই করছে বিশাল সাপ ও কুকুর, স্পিডে ট্রেন আসতেই ঘটল বিপত্তি, ভাইরাল ভিডিও

বর্তমানে বিজ্ঞানের যুগে সমাজ হয়ে উঠেছে অত্যন্ত উন্নত। মানুষ হয়ে উঠেছে নানা রকম গেজেটে অভ্যস্ত। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আমরা বিজ্ঞানের সাহায্যে বিভিন্ন যন্ত্রের মাধ্যমে চলি।

সকালে এলার্ম অফ ফোনের আওয়াজে ঘুম থেকে উঠে পড়া, ব্রাশ করে স্বয়ংক্রিয় গ্যাসে রান্না করা, আবার গাড়ি করে অফিসে বেরোনো সারাদিন কম্পিউটারে কাজ সবই বিজ্ঞানের মাধ্যমে হয়।

বর্তমানে লকডাউনের বাজারে আজকাল work-from-home চালু হয়েছে। একটি হাতের মধ্যে থাকা ছোট স্মার্টফোনের মাধ্যমে অফিসের কাজ শিক্ষা সবকিছু চলছে সারা পৃথিবীতে।

বর্তমানে ছোট স্মার্ট ফোনের সফটওয়্যার এতটাই উন্নত হয়ে গেছে তা দিয়ে আমরা যেকোন কিছু করতে পারি। এমনকি তার মধ্যেই টিভি খেলাধুলা গান-বাজনা সবকিছুই করা যায়। ডিজিটালাইজেশনের মাধ্যমে সারা পৃথিবী রয়েছে সচল।

এমনকি বহু দুর দুরান্তে থাকা আত্মীয়স্বজন কেউ আমরা ভিডিও কলিং এর মাধ্যমে দেখে নিতে পারি। বিজ্ঞানের যুগে মানুষ দ্রুত চলেছে এগিয়ে। সিনেমা দেখতে আমরা সকলেই ভালোবাসি।

বিশেষ করে সিনেমার নানারকম যুদ্ধ অ্যাডভেঞ্চারাস দৃশ্যগুলি আমাদের মুগ্ধ করে। বিশেষ করে হলিউডে নানারকম সিনেমা যেমন “অ্যাভেঞ্জার্স’,”অবতার”, বলিউডে “বাহুবলী”, “রোবট”প্রভৃতি মুভিগুলি আমাদের অত্যন্ত প্রিয়।

এইসব মুভিতে করা যুদ্ধ, একশন সিন গুলি আমাদের বারবার মুগ্ধ করেছে। কিন্তু আমরা যদি ভেবে দেখি সবই নকল তাহলে আমাদের কি রকম লাগবে?

আসলে এই সমস্ত চিহ্নগুলি সবই করা হয় একটি ছোট ঘরে এবং সাজিয়ে দেয়া হয় প্রযুক্তির মাধ্যমে। গ্রাফিক্স এবং স্পেশাল এফেক্ট এর মাধ্যমে আমাদের সব কিছুই আসলের মত মনে হয়। এই সমস্ত দৃশ্যগুলি আমাদের মুগ্ধ করে বারবার।

এমনকি বর্তমানে নানা কম্পিউটার গেম গুলিতেও থ্রিডি এফেক্টস গ্রাফিক্স প্রভৃতির ব্যবহার দেখা যায়। বিশেষ করে একশন-এডভেঞ্চার গ্রামগুলিতে থ্রিডি ইফেক্ট এর মাধ্যমে দৃশ্যগুলিকে এমন ভাবে সাজিয়ে তোলা হয় দেখে মনে হয় যেন আমরা সত্যিই সেই সব জায়গার মধ্যে দিয়েই যাচ্ছি,

এবং দৃশ্যগুলিকে নিজের মধ্যে থেকে অনুভব করছি। গ্রাফিক্স এর কাজ গুলি আমাদের সকলেরই অত্যন্ত পছন্দ। সম্প্রতি ভাইরাল একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি স্থানে রেল লাইনের উপরে বসে রয়েছে এক বিশাল ভয়ঙ্কর অ্যানাকোন্ডা সাপ। কিন্তু অবাক কাণ্ড, তার সাথে রয়েছে একটি ছোট কুকুরের বাচ্চা। কুকুরের বাচ্চা তুই বারবার দু পা তুলে সাপটিকে আক্রমণের চেষ্টা করছে এবং সাপটি বারবার তাকে ছোবল মারার চেষ্টা করছে।

হঠাৎই অন্যদিক থেকে ধেয়ে আসে একটি ট্রেন, ট্রেনটি দেখেই ভয় পেয়ে যান দর্শকরা। একটি ট্রেন অন্য লাইন থেকে চলে গেলেও আরেকটি ট্রেন সোজা ছুটে আসে তাদের দিকে, যেকোনো মুহূর্তে বাচ্চাটি ও কুকুরটি ট্রেনের তলায় চাপা পড়ে যাবে। কিন্তু হঠাৎই ভোজবাজির মতোই কুকুরটি ও সাপটি অদৃশ্য হয়ে যায়, ট্রেনটি সেখান থেকে চলে যায়।

দর্শকরা হতভম্ব হয়ে গেছেন দৃশ্যটি দেখে। পরে সবাই বুঝতে পারলেন এগুলি ছিল আসলে সবই প্রযুক্তির খেলা। পুরো দৃশ্যটিকে সাজানো হয়েছিল থ্রিডি গ্রাফিক্স এর মাধ্যমে। সাপ এবং কুকুরটি ছিল গ্রাফিক্স এর মাধ্যমে তৈরি করা তাই ট্রেন চলে গেলেও তাদের কিছুই হয়নি। ভিডিওটি দেখে দর্শক হয়ে গেছেন চমৎকৃত এবং হতবাক। প্রযুক্তির এই উন্নতি মুগ্ধ করেছে তাদের।

ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে, “সান ডেইলি” নামে একটি অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে। হাজার হাজার মানুষ ভিডিওটি লাইক করেছে। অনেক মানুষ কমেন্ট করেছেন ভিডিওটিতে। বিশেষ করে প্রযুক্তির মাধ্যমে করা এই ভিডিওটির প্রশংসা করেছেন সবাই। নতুন রকমের এই ভিডিওটি অত্যন্ত মজা দিয়েছে তাদের। সারা পৃথিবীতে ভিডিওটি হয়ে গেছে ভাইরাল।

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায়ই এরকম ভিডিও ভাইরাল হয়। মানুষের জীবন সর্বদাই কর্মব্যস্ত, তাইত দিনের শেষে সব ভিডিওগুলি মানুষকে কিছুটা হলেও স্বস্তি দেয়। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে করণা আতঙ্কের মাঝেও অচল পৃথিবী হয়েছে সচল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *