Google Map এ ট্রানজিট চালু হল বাংলাদেশের জন্য

এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাওয়ার জন্য গুগল ম্যাপে অনেক ধরনের অপশান প্রোভাইড করে থাকে। যেমনঃ আপনি যদি হেঁটে যদি এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যেতে চান তাহলে গুগল ম্যাপ সম্ভাব্য সব রাস্তা সময়সহ বলে দিয়ে থাকে।

এভাবে বাইক ও কার দিয়েও কিভাবে একস্থান থেকে অন্য স্থানে যাওয়া যায় সব রাস্তা সময় অন্যান্য তথ্য দিয়ে থাকে। কিন্তু সবচেয়ে ক্রুসিয়াল হচ্ছে পাবলিক ট্রান্সপোর্টের বা গণপরিবহনের তথ্য পাওয়া।

উন্নত বিশ্বের অনেক দেশে গুগল ম্যাপেই পাবলিক ট্রান্সপোর্টের তথ্য পাওয়া গেলও আমাদের দেশের জন্য এটি আনাভাইলেবল ছিল এতদিন ধরে। কিন্তু আজ থেকে প্রাথমিকভাবে ঢাকাবাসীর জন্য উনক্ত হল গুগল ম্যাপের ট্রানজিট অপশানটি।

ঢাকা শহরে বাসের রুট রয়েছে ২৯১টি। এত গুলো রুটের নাম,স্টপেজ ও ভাড়াসহ মনে রাখা রীতিমত কষ্টসাধ্য। রাজধানী হওয়ায় বিপুল মানুষের এই শহরে আসতে হয় এবং তাঁদের গন্তব্যস্থলে যাওয়ার জন্য বাস রুটে জানতে অনেক ভোগান্তি পোহাতে হয়।

এছাড়া বিদেশি পর্যটকের জন্য এইসব তথ্য পাওয়া আরো কঠিন যদি না সে লোকাল গাইডের সহায়তা না নেয়। কিন্তু বাংলাদেশে গুগল ট্রানজিট চালু হওয়ায় এখন থেকে এইসব ভোগান্তি অনেক কমে আসবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

যেমনঃ আগে আপনি এক স্থান হতে অন্য স্থান যাওয়ার জন্য যেভাবে একটি স্টার্টিং পয়েন্ট ও ডেস্টিনেশন পয়েন্ট দিতেন ঐভাবেই দেওয়া পর ডিফল্ট ভাবে ‘কার’ করে যাওয়ার রুট দেখানো হবে প্রথম ট্যাবেই।

এইবার পাবলিক ট্রান্সপোর্ট এর অপশান পাওয়ার জন্য তৃতীয় ট্যাবে(ট্রেনের লগো) যেতে হবে। ঐ ট্যাবেই রিকোমান্ডেড রুট সহ সম্ভাব্য সব রুটের নাম, যেতে কতক্ষন লাগতে পারে ও ভাড়া সহ দিয়ে দেওয়া থাকবে।

এরপর আপনি আপনার পছন্দমত রুট এ ক্লিক করলে আপনার নিকটবর্তী বাস স্টপ, যে যে রোড ফলো করে গন্তব্যস্থলে পৌছানো হবে তার সম্ভাব্য সব তথ্য দেওয়া থাকবে। এখন যদি আপনার অবস্থান থেকে আপনার গন্তব্য স্থলে একটি মাত্র বাসে যাওয় পসিবল না হয় সেক্ষেত্রে রুট স্প্লিট করে যে যে বাস রুট চেঞ্জ করে যেতে হবে তারও বিস্তারিত থাকবে।

শুধুমাত্র বাসের তথ্য নয় থাকবে ট্রেনের তথ্যও। যেমনঃ ঢাকা থেকে অন্য জেলা শহর গুলোতে যাওয়ার জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ের যে ট্রেনের সময়সূচি রয়েছে সেই অনুযায়ী ট্রেনের স্টেশন, নাম ও ভাড়া দেওয়া থাকবে। সামনে যখন ঢাকায় মেট্রোরেল চালু হবে আশা করছি মেট্রোরেলের তথ্য এতেও পাওয়া যাবে।

এছাড়া গুগল ম্যাপে বিজ্ঞাপন হিসেবে ট্রানজিট ট্যাবে একদম নিচে থাকছে UberX। UberX দিয়ে গেলে কত সময় ও ভাড়া লাগতে পারে তাও দেওয়া থাকবে। প্রাথমিকভাবে শুধুমাত্র ঢাকায় শহরের জন্য চালু হলেও আশা করা যাচ্ছে খুব অল্প সময়ে অন্য শহর গুলোতেও পাওয়া যাবে এই সেবা যেমনটি হয়েছিল লাইভ ট্রাফিক আপডেটের ক্ষেত্রে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *