দেশে বন্ধ পাবজি ও ফ্রি ফায়ার গেমঃ হাইকোর্ট

এবার দেশে পাবজির ও ফ্রি ফায়ারের মত ক্ষতিকর অনলাইন গেম বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সাথে টিকটক, লাইকি কিংবা ভিগো লাইভের মত ক্ষতিকর অ্যাপ কেন বন্ধ করা হবে না এই মর্মে রুল জারি করেছে আদালত।

সোমবার (১৬ আগস্ট) সোমবার বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

গত ২৪ জুন হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় মানবাধিকার সংগঠন ‘ল অ্যান্ড লাইফ’ ফাউন্ডেশনের পক্ষে গেম এবং অ্যাপগুলোর ক্ষতিকারক দিক তুলে জনস্বার্থে রিটটি করেন সুপ্রিম কোর্টের দুই আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব ও মোহাম্মদ কাউছার।

লকডাউনের কারনে অবশ্য এই রুলের শুনানি চলছিলো না। গত ১ জুলাই শুনানির দিন ধার্য করা হলেও লকডাউনের কারনে তা পিছিয়ে দেয়া হয় আদালতের পক্ষ থেকে। যেখানে আজ এমন সিদ্ধান্ত এসেছে হাইকোর্টের পক্ষ থেকে।

দেশে পাবজি, ফ্রি ফায়ারের মত ক্ষতিকর গেমগুলো বন্ধের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট দফতরে পাঠানো লিগ্যাল নোটিশের কপি বিটিআরসি কর্তৃপক্ষকে সরবরাহ করতে বলা হয়।

দেশে পাবজির ও ফ্রি ফায়ারের মত অনলাইন গেমে শিশু কিশোরদের আসক্তি সমাজে মারাত্মক ধরনের ক্ষতি সৃষ্টি করতে পারে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা।

সেই সাথে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কারনে অনলাইন গেলে শিশুদের আসক্তি আরও বেড়ে গিয়েছে গত দেড় বছরে। গোটা দেশে বেশ কিছু মৃত্যুর ঘটনাও ঘটেছে এই গেমকে কেন্দ্র করে।

ফলে এসব ক্ষতিকর দিক এড়ানোর জন্যই হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। এর আগে অবশ্য ডাক ও টেলিযোগাযগ মন্ত্রী জানিয়েছিলেন পাবজি ও ফ্রি ফায়ার গেম বন্ধ করা হবে না দেশে।

মন্ত্রীর পক্ষ থেকে নানা যুক্তি তুলে ধরা হলেও শেষ পর্যন্ত এসব ধোপে টিকেনি। তাই পাবজি ও ফ্রি ফায়ার বন্ধের পর দ্রুতই হয়তো দেশে বন্ধ হতে পারে টিকটক ও লাইকির মত অ্যাপগুলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *