পরীমণির জন্য আদালতে লড়ছেন, শুটিংও করছেন

র‌্যাবের হাতে আটক হয়ে রিমান্ডে থাকা ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমণিকে আইনি সহায়তা দিতে আদালতে ছুটে গিয়েছিলেন অভিনেতা আমান রেজা। পরীমণির প্রধান আইনজীবী মুজিবর রহমানের দলের আট সদস্যের একজন আইন বিষয়ে পড়ুয়া এই নায়ক।

নায়িকার পাশে দাঁড়িয়ে সবার প্রশংসাও কুড়াচ্ছেন। পরীমণির মামলার পরবর্তী শুনানি আগামীকাল বুধবার (১৮ আগস্ট)। এর মাঝেই কোর্ট ছেড়ে ক্যামেরার সামনে হাজির হয়েছেন আমান। অংশ নিচ্ছেন অমিতাভ রেজা চৌধুরীর পরিচালনায় একটি প্রসাধনীর বিজ্ঞাপনের শুটিংয়ে।

আমান বলেন, ‘অমিতাভ রেজা ভাইয়ের সঙ্গে আমার চতুর্থ বিজ্ঞাপন এটি। গতকাল (১৬ আগস্ট) এটির শুটিং শুরু হয়েছে। আজও শুটিং চলছে। তারপর আবারও আদালতে পরীমণির মামলা নিয়ে দাঁড়াব।’

তিনি বলেন, ‘পরীমণি একজন অভিনয়শিল্পী ও নারী। তার জামিনের পাওয়ার আইনগত অধিকার রয়েছে। আমরা চাই তার জামিনটা যেন শিগগিরই হয়। যদি তিনি অপরাধী প্রমাণিত হন তাহলে শাস্তি পাবেন। তবে তার জামিন পাওয়ার অধিকার আছে।’

আমান আরও যোগ করেন, ‘আমার দায়িত্ব হচ্ছে একজন আইনজীবী হিসেবে সাধারণ মানুষের জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে আইনগত সহায়তা করা। চলচ্চিত্রের আরও অনেক পরিচালক ও অভিনয়শিল্পীদের মামলা পরিচালনা করেছি। এবার একজন সহকর্মী, সহযোদ্ধা ও আইনজীবী হিসেবে পরীমণির পাশে দাঁড়াতে পেরে বেশ ভালো লাগছে।’

উল্লেখ্য, আমান রেজা ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন। বাংলাদেশে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটিতে এলএলএম পড়ছেন। তার বাবা আবু নাসের একজন ব্যবসায়ী। মা জাহানারা বেগম অবসরপ্রাপ্ত একজন জেলা জজ।

২০০৮ সালে হাফিজ উদ্দিনের ‘সেই তুফান’ সিনেমা দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক আমানের। তবে তার মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম সিনেমা ‘ভালোবাসার শেষ নেই’। বর্তমানে তার হাতে রয়েছে- ইফতেখার চৌধুরীর ‘মুক্তি’, নদী তারিকের ‘চৈত্রের দুপুর’, মিনহাজ কিবরিয়ার ‘বিভোর আই ডাই’, মিজানুর রহমান লাবুর ‘পরী তোমার জন্য’ ও মনতাজুর রহমান আকবরের ‘আয়না’ প্রভৃতি সিনেমা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *