ট্যালেন্টের জোরেই এসেছে জয়! রইল ইন্ডিয়ান আইডল জয়ী পবনদীপের আসল পরিচয়

পবনদীপ রাজন (Pawandeep Rajan) বলেছিলেন, তিনি এই ‘ইন্ডিয়ান আইডল 12’-এ জেতার জন্য আসেননি, সেরা বিচারকদের কাছ থেকে শিখতে এসেছিলেন।

কিন্তু 15 ই অগস্ট দুপুর বারোটা থেকে শুরু হওয়া গ্র্যান্ড ফিনালের প্রথম থেকেই একটি সর্বভারতীয় নিউজ পোর্টালে পোল চলছিল। তাতে দেখা যাচ্ছিল, পবনদীপের দিকেই ভোট বেশি আসছে।

এরপর কাঁটায় কাঁটায় রাত বারোটার সময় পবনদীপের হাতে উঠল ‘ইন্ডিয়ান আইডল’-এর ট্রফি। তার সাথে পবনদীপ পেলেন পঁচিশ লক্ষ টাকার চেক এবং গাড়ির চাবি।উত্তরাখন্ডের একটি মিউজিক‍্যাল পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন পবনদীপ।

তাঁর বাবা সুরেশ রাজন (Suresh Rajan) এলাকার বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গান গাইতেন। বাবার কাছেই পবনদীপের সঙ্গীতশিক্ষার হাতেখড়ি। কলেজে পড়ার সময় থেকেই পবনদীপ বিভিন্ন সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে শুরু করেন।

এভাবেই তিনি নিজেকে রীতিমতো পাকাপোক্ত করে তুলছিলেন। 2015 সালে ‘ভয়েস অফ ইন্ডিয়া’ প্রতিযোগিতায় সুযোগ পান পবনদীপ। শেষ অবধি এই প্রতিযোগিতা জিতে যান তিনি।

পবনদীপের হাতে তুলে দেওয়া হয় ট্রফি, পঞ্চাশ লক্ষ টাকার চেক, একটি মারুতি অলটো কে টেন কারের চাবি এবং ইউনিভার্সাল মিউজিক কোম্পানির সঙ্গে একটি চুক্তিপত্র।

এই চুক্তি অনুযায়ী 2015 সালে পবনদীপের প্রথম মিউজিক ভিডিও ‘ইয়াকিন’ রিলিজ হয়। একই বছর ‘ভয়েস অফ ইন্ডিয়া’ পবনদীপকে উত্তরাখন্ডের ইউথ ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর ঘোষণা করা হয়।

2016 সালে আরুন হারুণ রশিদ (Aarun Harun Rashid)-এর যৌথভাবে একটি মিউজিক অ্যালবামে কাজ করেন যার নাম ‘ছোলিয়র’। 2017 সালে ‘রোমিও অ্যান্ড বুলেট’ ফিল্মের জন্য পবনদীপ ‘তেরে লিয়ে’ গানটি গেয়েছিলেন।

গান ছাড়াও কি-বোর্ড, ড্রাম, তবলা, গিটারের মতো বেশ কয়েকটি মিউজিক ইন্সট্রুমেন্ট বাজাতেও সিদ্ধহস্ত পবনদীপ। ‘ইন্ডিয়ান আইডল 12′-এর মঞ্চেও তিনি ঢোলক বাজিয়ে সবাইকে অবাক করে দিয়েছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *