প্রথম উপা’র্জনের টাকা বাবার হাতে তুলে দিয়েছিল জান্নাতুল হাসিন

‘হাসি’নের সঙ্গে যে ছে’লে’টির স’ম্প’র্ক ছিল গত রম’জানে সে বি’য়ে করে। এতে ভে’ঙে প’ড়ে হাসিন। আমি তাকে সা’ন্ত্ব’না দি’য়েছি। আম’রা মনে করে’ছিলা’ম হাসিন সামলে উঠ’ছে। সে স্বাভা’বিক হয়ে’ছে। কিন্তু হঠাৎ করে’ই সে এমন করবে আম’রা বু’ঝতে পারিনি।’

‘বি’চ্ছে’দের ক’ষ্টটা সহ্য কর’তে পা’রেনি মে’য়েটা। আমা’দের স’ঙ্গে ক’থাটা বলতে পারেনি। আমি আমা’র মে’য়েকে’ ভুল’তে পার’ছি না। বড় ল’ক্ষ্মী ছিল হাসিন। ‘আমা’র পায়ে সমস্যা। মা’রা যা’ওয়ার আগের দিনও আ’মাকে পা’য়ের এ’ক্সরে করতে বলে’ছিল মে’য়েটা।

কিন্তু তার মনে যে এত অ’ভি’মান জমা ছিল তা কে জা’নত। জানেন, পিতার কাঁ’ধে সন্তানের লা’শ’ কত ভা”রী?’ কথা বলতে বলতেই চোখ ঝা’প’সা হয়ে ওঠে জা’ন্নাতু’ল হা’সিনের বাবা ই’দ্রিস মেহে’দীর।

তাকে সা’ন্ত্বনা দেয়া’র চে’ষ্টা যা’রাই কর’ছেন তা’দেরকে ধরে’ই কেঁ’দে’ উ’ঠছেন তিনি। বৃহ’স্পতি’বার দুপুরে কু’মিল্লার বুড়িচং উ’পজে’লার রাজা’পু’র ইউ’নি’য়’নের গ্রা’মের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় ই’দ্রিস মেহে’দীর বা’ড়িতে ভিড় করে’ছেন স্বজ’নরা।

হাসিখুশি মে’য়েটার এ’ভাবে চলে যাও’য়া মান’তে পার’ছেন না কেউই। দিনের বেলা কোন র’কম কে’টে গে’লেও রাতটা যেন শে’ষই হয় না ইদ্রিস মে’হে’দীর। মে’য়ে হাসি’নের নীল শাড়ি পড়া ছবি’টা বুকে জ’ড়িয়ে থাকেন।

বা’সায় কে’উ গে’লে তা’কে ছ’বিটা দেখি’য়ে বলে’ন, ‘আমা’র মে’য়েটা’ র’ত্ন ছিল। আমি তাকে ক’খনো কো’নো অ’ভাব বু’ঝতে দে’ইনি। তার’পরও কেন আমা’র সঙ্গে এম’ন হলো।’

মে’য়ে হা’রিয়ে বা’করু’দ্ধ মা জা’হান’রা বেগম। গত তিন দিন ধরে বি’ছানায় শু’য়ে কেঁ’দে কে’টে’ই দিন কা’টছে তার। বৃহ’স্প’তিবার এ’শার না’মা’জ শে’ষে’ তিনি ব’লেন, ‘হাসি’নের সঙ্গে যে ছে’লেটি’র স”ম্প’র্ক ছিল গত রমজানে সে বি’য়ে করে। এতে ভে’’ঙে পড়ে’ হাসিন।

আমি তাকে য’থেষ্ট সা’ন্ত্বনা’ দিয়েছি। আম”রা মনে ক’রেছি’লাম হাসি’ন সামলে উঠছে। সে স্বা’ভাবিক হ’য়েছে। কি’ন্তু হ’ঠাৎ ক’রেই সে এমন কর’বে ‘আম’রা ‘ঝ’তে পারিনি।’

মঙ্গল’বার ধ’’র্ম’সা’গর এ’লা’কার একটি নির্মা’ণাধী’ন ভব’নের’ কাছ থেকে হা’সিনের ম’র’দে’হ উ’দ্ধা’র করে পু’লিশ। ধা’রণা করা হচ্ছে, ওই নয় তলা ভব’ন থেকে তি’নি লা’ফ দিয়ে’ জীবন দিয়েছে হাসিন।

তেইশ বছ’রের হাসিন বাংলা’দেশ ইউনি’ভা’র্সি’টি অফ বিজ’নেস টে’কনলজি’তে পড়’তেন। বুধবার ই’দ্রিস মেহেদি ব’লেছিলেন, ‘সোমবার কাউকে কিছু না জানি’য়ে ঢাকা থেকে কুমিল্লা’য় চলে আ’সেন হা’সিন। পর দি’ন দুপুরে সে আ’মাদের এক হা’জার’ টাকা দেয়।

টাকা কোথা’য়’ পেলে জা’নতে চাইলে হা’সিন বলে’ছিল সে ব্যাং’কে ইন্টা’র্ন কর’ছে। এটা তার প্র’থম উপা’র্জন।’ এর ঘ’ণ্টাখা’নেক পর হাসিন শ্যা’ম্পু আ’নার কথা বলে বা’সা থেকে বে’রিয়ে’ যান। পরে তা’র মৃ’’ত্যু’র খবর পা’য় পরিবা’র।

তার মৃ’’ত্যু’র এক দিন পর ওই ভব’ন সং’লগ্ন এ’কটি রাজ’নৈতিক কা’র্যা’লয়ে বসানো সিসি ক্যামেরার ফুটেজ পাওয়া গেছে। দেড় মিনিটের ওই ফুটেজে দেখা যায়, হাসিন একাই ওই ভবনে ঢুক’ছেন।

এর ঠিক ১০ মিনিট পরে হা’সিন’কে ভ’বন থে’কে নিচে পড়’তে দে’খা যায়। লো’কজ’ন ছুটে ‘গি’য়ে তার মা”থা ও শ”রী’রে পা’নি ঢালতে থাকে। ভবনের নি’রাপ’ত্তা”কর্মী হাবিবুর রহমান জানান, ‘হাসি’ন ঢোকার স’ময় তিনি কোথা’য় যাবেন ‘জা’তে চেয়ে’ছি’লেন। এ সম’য় হাসিন স”প্তম ত’লায় যাও’য়ার কথা জানান।’

ই’দ্রিস মে’হেদীর বড় মে’য়ে জা’ন্নাতু’ল হেসান স্বা’মী’র স’ঙ্গে ঢাকা’য় থাকে’ন। ঢাকায় পড়া’লে’খার কা’রণে মে’জো মে’য়ে ব’ড় বোন হে’সা’নের কা’ছেই থাকত। ছোট মে’য়ে জা’ন্নাতুল ফের’দৌস প্রমি ক’লেজে পড়ে। এক’মাত্র ছে’লে তান’ভীর মাহ’তাব প্রিন্স কলেজের ছাত্র।

হাসিনের বাবা জানান, পড়া’লে’খার পাশাপা’শি একটি ব্যাং’কে ই’ন্টার্ন কর’ছি’ল হাসিন। অ’ফিস শে’ষে বাসা’য় ফির’তে প্রা’য়ই তার দে’রি হতো। এ নি’য়ে বড় বো”নের স’ঙ্গে তার ম’নো’মা’লিন্য ছি’ল। বোনে’র স’ঙ্গে স”ম্প’র্ক ভা’লো না যা’ওয়াটাও ক’ষ্ট দি’য়েছে হা’সিনকে।

হাসিনের মৃ’’ত্যু’র ঘট’না’য় কো’তোয়া’লি থা’নায় অ’প’মৃ’ত্যু মা’’ম’লা হ’য়েছে। বুধবার বি’কে’লে জা’নাজা শে’’ষে তা’কে গ্রা’মের বা’ড়ি’তে দা’’ফ’ন করা হয়ে’ছে। এ ঘ’টনায় হাসিনের প’রিবার ও সহ’পাঠী’দের মা’ঝে শো’’কে বি’রা’জ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *