হিলি বন্দরে কমেছে দেশি পেঁয়াজের দাম

ভারত থেকে পেঁয়াজের আমদানি বাড়ায় দিনাজপুরের হিলি বন্দরে কমেছে দেশি পেঁয়াজের দাম। তিন দিনের ব্যবধানে দাম কমেছে কেজিতে ১০ টাকা।

পাইকারি বাজারে প্রকারভেদে ৪০ টাকার দেশি পেঁয়াজ এখন বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩২ টাকা কেজি দরে। অন্যদিকে ভারত থেকে আমদানিকৃত পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে পাইকারি বাজারে ২৬ থেকে ২৮ টাকা কেজি দরে।

পেঁয়াজের দাম কমায় স্বস্তি ফিরেছে সাধারণ ক্রেতাদের মধ্যে। সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে হিলি পেঁয়াজ বাজার ঘুরে দেখা যায়, তিনদিন আগে আমদানি কম হওয়ায় দেশি পেঁয়াজের দাম বেড়ে পাইকারি বাজারে বিক্রি হয়েছিল

৪০ টাকা কেজি দরে। খুচরা বাজারে মুল্য ছিল ৪৫ টাকা কেজি। তিন দিনের ব্যবধানে ভারতীয় পেঁয়াজের আমদানি বাড়ায় ৪০ টাকার দেশি পেঁয়াজ এখন বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা কেজিতে। খুচরা বাজারে দাম কেজিতে ৩৪ টাকা।

ভারত থেকে আমদানি হওয়া পেঁয়াজ পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে ২৬ থেকে ২৮ দরে। সেই পেঁয়াজ খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা কেজিতে।

বাজারে পর্যাপ্ত পেঁয়াজের আমদানি ও দাম কমে যাওয়ায় স্বস্তি ফিরেছে সাধারণ ক্রেতাদের মধ্যে। হিলি বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা নয়ার শেখ রাইজিংবিডিকে বলেন, এক সপ্তাহ আগে ২৫ থেকে ২৬ টাকা দরে পেঁয়াজ

কিনেছিলাম। পরে দাম বেড়ে ৪৫ টাকা হয়েছিল, এতে আমাদের মতো সাধারণ মানুষকে হিমশিম খেতে হয়েছিল। আজ বাজারে এসে দেখি দাম অনেকটা কমেছে।

যদি দাম আরেকটু কম হতো তাহলে আমাদের অনেক উপকার হতো। হিলি বাজারের পেঁয়াজ পাইকারি ব্যবসায়ী ফেরদৌস রহমান বলেন, ভারত থেকে পেঁয়াজের আমদানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দাম অনেকটাই কমে গেছে।

৪০ টাকার পেঁয়াজ আজ ৩০ টাকা কেজি পাইকারি দিচ্ছি। আর ভারতীয় পেঁয়াজ ২৬ থেকে ২৮ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। পেঁয়াজের আমদানি বাড়লে বাজারে দাম আরও কমে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.