রা,শিয়াকে সহায়তা করলে চীনকে ক,ঠোর পরিণতির হুঁ,শিয়া,রি যুক্তরাষ্ট্রের

ইউক্রেনে চলমান রুশ আগ্রাসনে চীন কোনো সহায়তা করলে কঠোর ‘পরিণামের’ মুখোমুখি হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্র সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, ইউক্রেনে আগ্রাসনের কারণে আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা এড়াতে

রাশিয়াকে কোনো সহায়তা দিলে চীনকে ‘অবশ্যই’ পরিণতি ভোগ করতে হবে। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান এ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

সোমবার (১৪ মার্চ) রোমে মার্কিন ও চীনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের মধ্যে একটি বৈঠকের আগে এই সতর্কবার্তা দেওয়া হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্মকর্তারা একাধিক মার্কিন সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন,

রাশিয়া আক্রমণ শুরু করার পরে চীনকে সামরিক সহায়তা দিতে বলেছিল। ওয়াশিংটনে চীনা দূতাবাস জানিয়েছে, তারা এই অনুরোধ সম্পর্কে অবগত নয়।

ওয়াশিংটনের চীনা দূতাবাসের মুখপাত্র লিউ পেনগুই বলেছেন,আমি কখনোই এরকম কিছু শুনিনি। সংকটের শান্তিপূর্ণ সমাধানে সব ধরনের গঠনমূলক উদ্যোগকে আমরা উৎসাহিত এবং সমর্থন করছি।

মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান বলেছেন, ওয়াশিংটন বিশ্বাস করে- আগ্রাসন চালানোর আগে রাশিয়ার পরিকল্পনা সম্পর্কে বেইজিং জানতো।

তবে মস্কোর বিস্তারিত পরিকল্পনা বেইজিং বুঝে উঠতে পারেনি বলেও মনে করেন তিনি। জ্যাক সুলিভান বলেছেন, বেইজিংয়ের ওপর নজর রাখছে ওয়াশিংটন।

আমরা সরাসরি এবং ব্যক্তিগতভাবে বেইজিংয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করছি, রাশিয়ার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে নিষেধাজ্ঞা এড়ানোর বড় কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হলে অবশ্যই পরিণতি ভোগ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, নিষেধাজ্ঞা থেকে বাঁচতে বিশ্বের কোনো দেশ থেকে কিংবা কোনো স্থান থেকে রাশিয়াকে কোনো ধরনের লাইফলাইন পেতে দেওয়া হবে না। সূত্র: রয়টার্স।

সংকট শুরু হওয়ার পর থেকে, বেইজিং দীর্ঘদিনের মিত্র মস্কোর প্রতি জোরালো অলঙ্কৃত সমর্থন প্রকাশ করেছে কিন্তু প্রকাশ্যে কোনো সামরিক বা অর্থনৈতিক সহায়তা দিয়েছে বলে জানা যায়নি।

তবে মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, সাম্প্রতিক দিনগুলোতে রাশিয়া বিশেষভাবে চীনের কাছে ড্রোনসহ সামরিক সরঞ্জাম চেয়েছে। সেই অনুরোধে চীনের প্রতিক্রিয়া জানা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.