সবাইকে কাঁদিয়ে চলতি বছর মা’রা গেছেন যেসব তারকা!

Sabbir Rahman 0

বি’;ষা’দের ব’ছর ২০২০। করো’নার প্র’কোপে থ’মকে ছিল পুরো বিশ্ব। ওলট-পালট হয়ে গিয়েছিল শো;বিজ দু’নিয়াও। বিষাদের এ বছরেও শো;বিজ অ’ঙ্গনের একা;ধিক তারকা বিদা;য় নিয়ে;ছেন পৃথিবী থেকে।

তবে তার;কারা বেঁচে থাকবেন তা’দের কাজ দিয়ে। যারা না ফেরার দেশে যারা চলে গেছেন তাদের জন্য রইল আমা;দের শ্রদ্ধা।এন্ড্রু কিশোর: ব্লা’;ড ক্যা’নসা’রে আ’ক্রা;’ন্ত হয়ে না ফে;রার দেশে চলে গেছেন কিংবদন্তি সঙ্গীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর।

২০২০ সালের ৬ জুলাই সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃ’;শ্বাস ত্যা;গ করেছেন তিনি। বাংলা সংগীতের জনপ্রিয় এ শিল্পী ‘প্লে-ব্যাক সম্রাট’ হিসেবেও পরিচিত। ১৯৫৫ সালের ৪ নভেম্বর রাজ;শাহী জেলায় জন্ম;গ্রহণ করেন এন্ড্রু কিশোর।

ছয় বছর বয়সে সঙ্গী;তের তালিম নিয়েছিলেন তিনি। গুণী এ শিল্পী আ;মাদের উপ;হার দিয়ে;ছেন অসং;খ্যা জনপ্রিয় গান। স্বীকৃতি হিসেবে ‘শ্রেষ্ঠ পুরুষ কণ্ঠ;শিল্পী’ ক্যা’;টাগরি’তে আ’;টবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কা;র পে;য়েছিলেন তিনি।

এ ছাড়া এ;কাধিক বা’চসাস পুরস্কার এবং মেরিল-প্রথম আলো পু;রস্কার;সহ অনেক সম্মা;ননা আছে তার ঝু’লিতে। আলাউদ্দীন আলী: সুর সম্রাট আলাউদ্দীন আলী মা’;রা গেছেন ২০২০ সালের ৯ আগস্ট।

চিকিৎসা;ধীন অবস্থায় রাজ;ধানীর একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বা’স ত্যা;গ করেন তিনি। আলাউ;দ্দীন আলী দীর্ঘ;দিন ধরে ফু’সফুস এবং র’ক্তের বি’ভিন্ন সম;স্যা;য় ভু;গ;ছিলেন।

১৯৫২ সালেল ১৪ ডিসে;ম্বর মুন্সী;গঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। আলাউদ্দীন আলী ছিলেন একাধারে একজন সুর;কার, বেহালাবাদক, সংগীতজ্ঞ, গীতিকার এবং সংগীত পরিচা;লক। সং;গীত পরিচা;লক হিসেবে সাতবার এবং গীতি;কার হি;সেবে একবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুর;স্কার লাভ করেন তিনি।

সাদেক বাচ্চু: করো’নায় আ’ক্রা’ন্ত হয়ে ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ রাজধানীর একটি হাস;পাতালে মা;’রা যান জনপ্রিয় অভি;নেতা সাদে;ক বাচ্চু। মৃ’;ত্যু;কা’লে তার বয়স হয়ে;ছিল ৬৫ বছর। জনপ্রিয় এ অভি;নেতার আ;সল নাম মাহবুব আহমেদ সাদে;ক। কিংব;ন্তি পরি;চালক এহতে;শামের ‘চাঁদনী’ সিনে;মায় তার নাম বদলে সা;দেক বাচ্চু রাখা হয়।

তিনি চলচ্চিত্র অ;ভিনেতা, নাটক রচয়ি;তা, নাট্যনির্দে;শক ও ডাক বিভাগের অব;সর;প্রাপ্ত কর্মকর্তা ছিলেন। মৃ;’ত্যু;র আগ পর্যন্ত চলচ্চিত্রে সক্রিয় ছিলেন এ অভিনেতা। ক্যা;রি’য়ারের স্বীকৃতি হিসে;বে ‘শ্রেষ্ঠ খল;চরি;ত্রে অভিনেতা’ ক্যাটাগ;রিতে জাতী;য় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন তিনি।

আলী যাকের: ৭৬ বছর বয়সে চিরবি;দায় নিয়েছেন সাংস্কৃ;তিক ব্যক্তিত্ব আলী যাকের। ২৭ নভেম্বর রাজ’ধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থা;য় মা;’রা যান তিনি। বার্ধ’ক্য, হৃ’;দ;রোগসহ এ;কাধিক শা’;রী’রিক জটিলতায় ভুগছিলেন আলী যা;কের। মৃ;’ত্যু;র আগে ক;রো’না;য় আ’ক্রা’ন্তও হয়েছি;লেন তিনি।

১৯৪৪ সালের ৬ নভেম্বর ব্রাহ্মণ;বাড়ি;য়া জেলার নবী;নগর উপজেলার রত;নপুর গ্রামে জ;ন্মগ্রহণ করেন বাংলা বেতার কেন্দ্রের এই শ;ব্দসৈ;নিক। ১৯৭২ সালে আ;রণ্যক নাট্য;দলের হয়ে অভি;নয় জীবন শুরু করেন তিনি। মঞ্চের পাশা;পাশি টিভি নাটকেও বেশ জনপ্রি;য় ছিলেন আলী যাকের। তার স্ত্রী সারা যাকের এবং পুত্র ই;রেশ যাকের।

কে এস ফিরোজ: শোবি;জের পরিচিত মুখ অভিনেতা কে এস ফিরোজ মা’রা গেছেন ৯ সেপ্টেম্বর সকাল ৬টা ২০ মিনিটে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সম্মি;লিত সা;মরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) তিনি শেষ নিঃশ্বা;স ত্যা;গ করে’ন। জ্ব’র, শ্বা’সকষ্ট ও ক’রোনা উপ;’সর্গ ছিল তার। ১৯৪৪ সালে বরি;শালে জন্মগ্রহণ করেন এ অভি;নেতা।

১৯৭৭ সালে সেনাবাহিনীর মেজর পদে চাকরি থেকে অব্যাহতি নেন তিনি। নাট্যদল ‘থিয়েটা;র’র সঙ্গে যু;ক্ত হয়ে অভিনয়ে কে এস ফিরোজের পথচলা শুরু। প্রথম অভিনয় করে;ন ‘দীপ তবুও জ্ব;লে’ নাটকে। ছোট;পর্দার পাশাপাশি বড়প;র্দাতেও ব্যস্ত ছিলেন তিনি।

চিত্রনায়;ক সাত্তার: আ;শির দশকের জনপ্রিয় নায়ক সাত্তার। ১৯৬৪ সালে কর্ম;জীবন শুরু করেছি;লেন। ১৯৬৮ সালে ইবনে মিজান পরিচালিত ‘আমির সওদাগর ও ভেলু;য়া সুন্দরী’ সিনো;মায় শিশুশি;ল্পী হিসেবে অভিনয় করেন তিনি। ১৯৮৪ সালে ‘র;ঙ্গিন রূপবান’ সিনেমায় অভিনয় করে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন সাত্তার। ক্যারিয়া;রে তিনি ১১০টি সিনেমায় অভি;নয় করেছেন। ৫ আগস্ট না ফে;রার দেশে চলে যান তিনি।

এ ছাড়া ২০২০ সালে শোবিজ দুনিয়া থেকে চিরতরে বিদায় নিয়েছেন আরও অনেকে। সে তালি;কায় রয়ে;ছেন চিত্রস;ম্পাদক আমিনুল ইসলাম মন্টু, প্রযোজ;ক মতিউর রহমান পানু, নায়িকা জবা, অভিনেতা রানা হামিদ, অভিনে;ত্রী মিনু মমতাজ, আবৃ;ত্তিশিল্পী ইশরাত নিশাত, সুরকার সেলিম আশরাফ, সংগীত প্রযোজক সেলিম খান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.