এই চার ধরনের লোক ভুল করেও বেদানা খাবেন না, নাহলে দেখা দিতে পারে সমস্যা

প্রকৃতির দেওয়া মূল্যবান উপহার হল ফল। সারা বিশ্বে নানা ধরনের ফল এবং সবজি পাওয়া যায়। আর এই নানান ফল নানা ভাবে এবং নানা সময়ে মানুষ খেয়ে থাকেন।

কিছু ফল কাচা আর কিছু ফল পাকা খেতে হয়। ফল অধিকাংশ মানুষের জন্যে স্বাস্থ্যকর। এই ফল শুধু রোগ দূর করে না বরং আমদের দেহে নতুন শক্তি সরবরাহ করে।

ফল আমাদের অত্যন্ত উপকারী। সেইজন্য প্রায় সব রোগীকে ফল খাওয়ার পরামর্শ দেন ডাক্তাররা। আবার কিছু কিছু ফল সবার শরীর সহ্য করতে পারে না। সেই জন্য কিছু কিছু ফল কিছু লোকেদের খেতে মানা করা হয়।

তেমনি একটি ফল হল বেদানা। এই ফল দেখতে যেমন লালা হয় তেমনি স্বাদেও ভালো। বেদানার রস আমাদের শরিরের তাজা ভাব বজায় রাখতে সাহায্য করে। বর্তমান দিনে অনেকেই তাদের প্রতিদিনের খাবারে বেদানা বা তার রস যোগ করে। কিন্তু আপনি হয়ত জানেন না এই বেদানা কতটা মারাত্বক হতে পারে।

আপনি হয়ত ভাবছেন যে ফল তো আমদের শরীরের জন্যে ভালো, ফল খেলে আর কি হবে! তাহলে আপনি ভুল ভাবছেন। চিন্তার কোন কারণ নেই, আমরা বলে দেবো কোন কোন ব্যক্তির জন্য বেদানা বিপদজনক। সুতরাং চলুন জেনে নিই এই ফল কোন কোন ব্যক্তির খওয়া উচিত নয়।

১। বর্তমান সময়ে বেশিরভাগ ব্যক্তিই রক্তচাপের মতো মারাত্মক রোগে আক্রান্ত। যেসব ব্যক্তিরা উচ্চ রক্তচাপের মত রোগে আক্রান্ত তাদের জন্যে বেদানা যেমন কোন বরদানের থেকে কম নয়, তেমনই যারা নিম্ন রক্তচাপের সমস্যা আছে তাদের জন্যে বেদানার ব্যবহার মারাত্মক হতে পারে।

২। এক গবেষণায় জানা গেছে যে সমস্ত ব্যক্তিরা এড’স অথবা কনো মানসিক রোগে আক্রান্ত এবং নিয়মিত ওষুধ সেবন করেন তাদের পক্ষে বেদানা অত্যন্ত মারাত্মক হতে পারে।

৩। বেদানা সাধারণত ঠান্ডা জাতীয় ফল। সেই কারণেই এর অধিকতর ব্যাবহার গরমকালেই হয়। যেসমস্ত লোকেদের সর্দি, কাশি, জ্বর অথবা কোষ্ঠকাঠিন্য রয়েছে তাদের পক্ষে বেদানার সেবন ক্ষতিকারক হতে পারে। এইসব লোকেদের বেদানা বাদ দিয়ে অন্য গরম জাতীয় জিনিসের সেবন করা উচিত।

৪। পৃথিবীতে অনেক মানুষের ধূলো, বালি, মাটি প্রভৃতি থেকে এলার্জি দেখা দেয়। এই সমস্ত ব্যক্তিদের নিজেদেরকে বেদানার থেকে দূরে থাকাই শ্রেয়। কারন বেদানায় যে সমস্ত উপাদান আছে তা এলার্জিকে বাড়িয়ে তোলে। তাই আপনাদের মধ্যে যদি এই ধরনের কোন সমস্যা থাকে তাহলে এই বেদানা থেকে শত হস্ত দূরে থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *