ভিখারি এখন নামী মডেল, বদলে গেছে জীবন

৪ বছর আগে রাস্তায় ভিক্ষা করত রিতা। কিন্তু ৪ বছর পর সে পরিণত হলো ফ্যাশন মডেল এবং অনলাইন সেলিব্রিটিতে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয় তার ছবি। ইনস্টাগ্রামেও রয়েছে লক্ষাধিক ফলোয়ার। মেয়েটির নাম রিতা গাভিওয়ালা।

থাকে ফিলিপাইনে। বয়স মাত্র ১৩। জানা গেছে, ২০১৬ সালে ফিলিপাইনের ফটোগ্রাফার তোফার লুসবান শহরে কুইন্টোতে বেড়াতে এসেছিল। সেখানেই রাস্তায় ভিক্ষা করা অবস্থায় রিতার সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ হয়ে একটি ছবি তোলেন তিনি।

এরপর ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেন তোফার। সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়ে যায় ছবিটি, আর বদলে যায় রিতার জীবন। ২০১৬ সালে রিতার ছবি যখন ভাইরাল হয়, তখন তাকে ভালোবেসে অনেকেই আর্থিক সহায়তা দিয়েছিলেন।

বেশ কয়েকটি ফ্যাশন ব্র্যান্ড রিতাকে মডেলিংয়ের অফার দিয়ে বসে। বিভিন্ন টিভি শোতেও ডাক পড়তে শুরু হয় তার। জানা গেছে, রিতা গাভিওয়ালা ফিলিপাইনের বেদজাও নামের একটি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্য।

তারা ৫ ভাইবোন। সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহারকারীরা অনেকে তাকে বেদজাও গার্ল বলেও ডাকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে অনেকেরই জীবন বদলে গেছে। তার মধ্যে যারা সর্বাধিক সাফল্য পেয়েছেন তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন রিতা।

২০১৮ সালে রিতা ইউটিউবে একটি ভিডিও আপলোড করে। যেখানে সে তার নতুন বাড়ি সম্পর্কে তথ্য দিয়েছিল। তার আমেরিকান ফ্যান গ্রেস এই বাড়িটি তৈরি করতে সহায়তা করেছিলেন। রিতা আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ছবি নিয়ে খবরে রয়েছেন। তবে এ মুহূর্তে তার মূল লক্ষ্য হলো পড়াশোনা শেষ করা।

৪ বছর আগে রাস্তায় ভিক্ষা করত রিতা। কিন্তু ৪ বছর পর সে পরিণত হলো ফ্যাশন মডেল এবং অনলাইন সেলিব্রিটিতে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয় তার ছবি। ইনস্টাগ্রামেও রয়েছে লক্ষাধিক ফলোয়ার। মেয়েটির নাম রিতা গাভিওয়ালা।

থাকে ফিলিপাইনে। বয়স মাত্র ১৩। জানা গেছে, ২০১৬ সালে ফিলিপাইনের ফটোগ্রাফার তোফার লুসবান শহরে কুইন্টোতে বেড়াতে এসেছিল। সেখানেই রাস্তায় ভিক্ষা করা অবস্থায় রিতার সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ হয়ে একটি ছবি তোলেন তিনি।

এরপর ছবিটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেন তোফার। সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাল হয়ে যায় ছবিটি, আর বদলে যায় রিতার জীবন। ২০১৬ সালে রিতার ছবি যখন ভাইরাল হয়, তখন তাকে ভালোবেসে অনেকেই আর্থিক সহায়তা দিয়েছিলেন।

বেশ কয়েকটি ফ্যাশন ব্র্যান্ড রিতাকে মডেলিংয়ের অফার দিয়ে বসে। বিভিন্ন টিভি শোতেও ডাক পড়তে শুরু হয় তার। জানা গেছে, রিতা গাভিওয়ালা ফিলিপাইনের বেদজাও নামের একটি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সদস্য।

তারা ৫ ভাইবোন। সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহারকারীরা অনেকে তাকে বেদজাও গার্ল বলেও ডাকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে অনেকেরই জীবন বদলে গেছে। তার মধ্যে যারা সর্বাধিক সাফল্য পেয়েছেন তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন রিতা।

২০১৮ সালে রিতা ইউটিউবে একটি ভিডিও আপলোড করে। যেখানে সে তার নতুন বাড়ি সম্পর্কে তথ্য দিয়েছিল। তার আমেরিকান ফ্যান গ্রেস এই বাড়িটি তৈরি করতে সহায়তা করেছিলেন। রিতা আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ছবি নিয়ে খবরে রয়েছেন। তবে এ মুহূর্তে তার মূল লক্ষ্য হলো পড়াশোনা শেষ করা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.