Breaking News
Home / বিনোদন / হু’মকির নিন্দা জানালেন শাকিব খান

হু’মকির নিন্দা জানালেন শাকিব খান

Advertisement

সম্প্রতি প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌস প্রাক্তন স্বামী প্রযোজক ইকবালের নামে থানায় জিডি করেন। পরদিন পাল্টা জিডি করেন ইকবাল। ইকবাল জিডিতে ইমন সাহার সঙ্গে জেনিফারের প্রেমের কথা উল্লেখ করেন।

এখানেই ঘটনার শেষ নয়। ইকবাল অভিযোগ করেন, এরপর থেকেই বিভিন্ন মাধ্যমে ইমন সাহা ও জেনিফার তাকে হুমকি দিচ্ছেন। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বাংলার খান, সুপারস্টার শাকিব খান।

প্রযোজক ইকবাল রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘ইমন সাহা-জেনিফার চক্র বিভিন্ন লোকের মাধ্যমে আমাকে হুমকি দিচ্ছেন।’ এ ঘটনায় শাকিব খান ক্ষোভ প্রকাশ করে রাইজিংবিডিকে বলেন,

‘শুনলাম প্রযোজক ইকবালকে সংগীত পরিচালক ইমন সাহা হুমকি দিয়েছেন। তিনি ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ডের দোহাই দিচ্ছেন। ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড তো আমরাও পেয়েছি।

কই আমরা তো অ্যাওয়ার্ডের দোহাই দিয়ে কাউকে হুমকি দেই না। ভালো কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ পুরস্কার দেওয়া হয়। এর মানে এই নয়, এই পুরস্কারের নাম ভাঙিয়ে কাউকে থ্রেট করা যায়।’

ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ডের নাম ভাঙিয়ে মানুষকে ভয় দেখানো খুব লজ্জার উল্লেখ করে শাকিব খান আরো বলেন, ‘আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই। পাশাপাশি বলবো, কারো ব্যক্তিগত অপরাধ ন্যাশনাল অ্যাওর্য়াড দিয়ে ঢাকা যায় না।’

সংগীত পরিচালক ইমন সাহা দীর্ঘদিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন। সেখান থেকেই সিনেমার গান তৈরি করছেন। ‘আশীর্বাদ’ সিনেমার সংগীত পরিচালক তিনি।

সেই সূত্র ধরেই সিনেমাটির প্রযোজক জেনিফার ফেরদৌসের সঙ্গে তার পরিচয়। এ প্রসঙ্গে সম্প্রতি ইমন সাহা ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে তার অবস্থান ব্যাখ্যা করেছেন। তিনি জেনিফারের সঙ্গে সম্পর্ককে পেশাগত উল্লেখ করে ‘আশীর্বাদ’ সিনেমা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেয়ারও ঘোষণা দেন।

এ প্রসঙ্গে ‘আশীর্বাদ’ সিনেমার পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক বলেন, ‘দাদা (ইমন সাহা) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার পর ফোন করেছিলাম। তিনি আমাকে বলেছেন, ‘সিনেমায় তিনি কাজটি করবেন।’ এরপর থেকেই মূলত ইমন সাহা-জেনিফারের প্রেমের গুঞ্জন চলচ্চিত্রাঙ্গনে জোরালো হয়।

Advertisement

Check Also

আমার কোনও ইগো নেই, আমার কাছে সব মানুষ সমান: সানি

Advertisement কিছু বছর অভিনয়ের পর বহু অভিনেতা-অভিনেত্রীই পা বাড়ান প্রযোজনার দিকে। সেই পথেই এবার এগোতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *