পরিচয় অস্বীকার করলেন বাবা, আ’দালতে মে’য়ে

অসহায় সুমি বেগম। মা-বাবা থাকা স’ত্তেও পরিচয়’বিহীন জীব’নযাপন করছেন তিনি। অবশে’ষে দীর্ঘ ৩২ বছর পর পিতৃ প’রিচয় ও ভরণ-পো’ষণের দাবি নিয়ে আ’দালতের দ্বারস্থ হ’য়েছেন সুমি বেগম।

২৫ জানুয়ারি বরি’শাল সদর’ সিনিয়র সহ’কারী জ’জ ও পারিবা’রিক আ’দালতে মামলা করেছেন তিনি। সুমি বেগম বরিশাল নগরীর ১০ ন’ম্বর ওয়ার্ডের চানমারী মাদরাসা সড়ক এলাকার বাসিন্দা।

মামলায় আ’সামি করা হ’য়েছে ঝালকা’ঠি বিশ্বরোড চৈ’তি ভিলার আ’ক্কেল আলী হাওলা’দারে’র ছে’লে ও ঝাল’কাঠি জে’লা প্রশাসকের কার্যালয়ের গা’ড়িচালক মোক্তার হাওলা’দারকে। মামলাটি পরবর্তী আ’দেশের জন্য অ’পেক্ষমাণ।

মামলা সূত্রে জা’না গেছে, ১৯৮৮ সালের ২০ মার্চ জাবেদা বেগম ও মোক্তার হাওলাদার দম্পতির ঘরে জন্ম সুমি বেগমের। বয়স যখন পাঁ’চ বছর, তখন বিচ্ছেদ হয় তার মা-বাবার।

এরপর জাবে’দা বেগম অন্য’ত্রে বিয়ে করলে মা-বা’বা হা’রা’ হয়ে পড়ে’ন সুমি। বড় হন বিভিন্ন মা’নুষের আ’শ্র’য়ে থেকে। সু’মি বেগম জা’নান, গত ব’ছরের ২৫ ডি’সেম্বর মোক্তা’র হাওলাদা’রের বাসায় ‘গিয়ে পি’তৃ প’রি’চয় ও ভরণ-পো’ষণ দাবি করে’ন তিনি। ওই সম’য় মো’ক্তার তাকে মে’য়ে হিসেবে মে’নে নিতে অস্বী’কার করেন। এরপর বা’ধ্য হয়ে আ’দালতের দ্বা’রস্থ হন সুমি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *