মুকেশ কন্যা ইশা আম্বানির চোখ ধাঁধানো প্রাসাদের দাম ৪৫০ কোটি! রয়েছে আস্ত একটি হিরের ঘর

Sabbir Rahman 0

বর্তমানে বিশ্বের দরবারে ভারতের নাম করলেই চলে আসে রিলায়েন্স জিও (Jio) -র কথা, আর স্বাভাবিকভাবেই তার স’ঙ্গেই উচ্চারিত হয় রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড-এর কর্নধার মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani)-এর নাম।

বিশ্বের প্রথম সারিরধনকুবের দের মধ্যে অন্যতম মুকেশ আম্বানি। আম্বানি পরিবারের একমাত্র কন্যা মুকেশের মেয়ে ঈশা আম্বানি (Isha Ambani) গত ১৪ ই ডিসেম্বর গাঁটছড়া বাঁধেন পিরামল এন্টারপ্রাইজের প্রধান অজয় পিরামলের ছেলে আনন্দ পিরামলের স’ঙ্গে।

তাদের বিয়ের সাজসজ্জা জাঁকজমক দেখেই চোখে ঝিলমিল লেগে গিয়েছিল সাধারণ মানুষের। রাজতন্ত্র না থাকলেও কার্যতই রাজকন্যা ঈশা। আর রাজকন্যার জন্য রাজপ্রাসাদ থাকবেনা তা কি হয়?

দক্ষিণ মুম্বইয়ে আরব সাগরের তীরে অবস্থিত ঈশা-আনন্দের চোখ ধাঁধানো বাংলোর অন্দরমহল যেন রূপকথার স্বপ্নপুরী৷ জানেন কি কেমন দেখতে সেই বাংলোর অন্দরমহল?

প্রায় সাড়ে ৪০০ কোটি টাকার এই প্রাসাদ ৫০ হাজার বর্গফুট জায়গার উপর গড়ে উঠেছে। ৬ বছর আগেহিন্দুস্থান ইউনিলিভার–এর থেকে কিনে এই প্রাসাদটি বিয়েতে ঈশাকে উপহার দেন আনন্দ।

কী নেই এই রাজপ্রাসাদে? এই সাতমহলা বাড়িতে রয়েছে তিনটি বেসমেন্ট, রয়েছে অনেকগু’’লো খাওয়ার ঘর এবং বিশাল বিশাল হল ঘর। এছাড়াও রয়েছে চোখ ধাঁধানো এক বিশাল সুইমিং পুল। বাড়ির সামনে সুসজ্জিত বিশাল বাগানে রয়েছে হরেক রকমের গাছ।

শুনলে চমকে যাব’েন এই প্রাসাদের থিম হল হিরে। তাই ঈশার এই প্রাসাদে রয়েছে আস্ত একখানা হিরের ঘর। এছাড়াও রয়েছে বিরাট বিরাট শয়নকক্ষ। এছাড়াও এই বাংলোতে এমন এক একটি ঘর আছে যার উচ্চতা প্রায় ৩৬ ফুট। জানলা দিয়েই দেখা যায় আরব সাগরের নীল জলরাশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *