বিদায়ের আগে মাঘের শীতে আরেক দফা কাঁপবে দেশ

মাঘ মাসের ১৬ তারিখ আজ। সারা দেশে বেড়েছে শীতের অনুভূতি। আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, বিদায়ের আগে আরেক দফা হাড় কাঁপানো শৈত্যপ্রবাহের কবলে পড়বে দেশ। এটা হবে এ মৌসুমের তৃতীয় শৈত্যপ্রবাহ।

দেশের উত্তর-পশ্চিম অঞ্চলে বৃহস্পতিবার থেকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। বিস্তার ঘটছে ঘন কুয়াশার। ঘন কুয়াশায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাড়ছে ফ্লাইট বাতিলের ঘটনা।

শুক্রবার সকালেও দুটি আন্তর্জাতিক ফ্লাইট শাহজালাল ও সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামতে না পেরে চট্টগ্রামের শাহ আমানতে অবতরণ করেছে। ঘন কুয়াশার কারণে বিকন বাতি ও মার্কিং পয়েন্ট দৃশ্যমান না হওয়ায় দুর্ঘটনা এড়াতে প্রতিদিন পাঁচ-সাত ঘণ্টা বন্ধ রাখা হয় শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটের ফেরি সার্ভিস।

আবহাওয়াবিদ মো. হাফিজুর রহমা বলেন, দেশের উত্তর-পশ্চিম অঞ্চল দিয়ে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। ঘন কুয়াশা পড়ছে। আগামী কয়েক দিন তা অব্যাহত থাকবে। এবারের শৈত্যপ্রবাহের সঙ্গে বৃষ্টি নামার আশঙ্কা নেই। তবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় শীতের তীব্রতা কিছুটা কমবে। এর পর আবারও বাড়তে থাকবে।

শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাওয়া এলাকার মধ্যে রয়েছে—রাজশাহী, ঈশ্বরদী, বদলগাছী, রংপুর, দিনাজপুর, সৈয়দপুরসহ পুরো রংপুর বিভাগ এবং খুলনা বিভাগের চুয়াডাঙ্গা। এছাড়া আরও বিভিন্ন অঞ্চল দিয়ে মৃদু আকারে শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় বাতাসের গতি ছিল উত্তর-পশ্চিম উত্তর দিক থেকে ঘণ্টায় ৬ থেকে ১২ কিলোমিটার। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৬০ শতাংশ। আগামী ৪৮ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, দিন ও রাতের তাপমাত্রা অনেকটাই অপরিবর্তিত থাকবে।

এদিকে শুক্রবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা সীতাকুণ্ডে ২৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল ঢাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ শাহীনুর রহমান বলেন, চলমান শৈত্যপ্রবাহ ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত থাকার আশঙ্কা রয়েছে। এতে তাপমাত্রা আরো কমবে।

আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ বলেন, গতকাল শুক্রবার রাতের তাপমাত্রা একটু বেড়েছে। তবে আজ শনিবার দিনের তাপমাত্রা কমতে শুরু করবে। এছাড়াও আকাশে মেঘ কেটে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তখন থেকেই কমতে শুরু করবে তাপমাত্রা। যা অন্তত তিন দিন অব্যাহত থাকবে। যে কারণে শীত বেশি অনুভূত হবে।

সিনিয়র আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক বলেন, মাঘ মাসের মাঝামাঝি চলছে। এরইমধ্যে শীতের অনুভূতিও বেড়েছে। বিদায়ের আগে আরেক দফা শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাবে। ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এমন আবহাওয়া বিরাজ করবে।

তিনি আরো বলেন, রাজশাহী, রংপুর, চুয়াডাঙ্গাসহ দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে বৃহস্পতিবার থেকে রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমছে। একই সঙ্গে মাঝরাত থেকে সকাল পর্যন্ত ঘন কুয়াশা পড়ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *