Breaking News
Home / ব্যবসা / পানির দরে বাড়ি মাত্র ৩.৫০ লাখ টাকায় করে নিন মনের মত বাড়ি

পানির দরে বাড়ি মাত্র ৩.৫০ লাখ টাকায় করে নিন মনের মত বাড়ি

Advertisement

স্বপ্নের বাড়ি বানাতে কে না চায়। কিন্তু স্বপ্ন থাকলেও তা বাস্তবায়িত ক’রতে পারে কয়জন। এবার দীর্ঘদিনের স্বপ্নই বাস্তব হতে চলেছে। জলের দরে সামান্য টাকা ইনভেস্ট করলেই পেয়ে যাবেন স্বপ্নের বাড়ি।

মধ্যবিত্তদের এই স্বপ্নকেই সফল ক’রতে বড়সড় সি’দ্ধান্ত নিল মোদী স’রকার। এবার প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার মাধ্যমে বাড়ি কেনার জন্য সাবসিডি-র সুযোগ মি’লছে।

ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় বাড়ির জন্য বুকিং শুরু হয়ে গিয়েছে ১ সেপ্টেম্বর থেকেই ৷ এই যোজনায় যারা বাড়ি কিনতে ইচ্ছুক, তারা আগামী ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত, অনলাইনের মাধ্যমেই আবেদন ক’রতে পারবেন ৷

প্রধানমন্ত্রীর আবাস যোজনার অন্তর্গত প্রথমবার বাড়ি কেনার জন্য গ্রাহকদের ক্রেডিট লিঙ্কড সাবসিডি দেওয়া হয়। অর্থাৎ বাড়ি কেনার জন্য লোনের সুদের হারে সাবসিডি দেওয়া হয় ৷ এই যোজনায় ২.৫০ লক্ষের বেশি পরিবার এই আ’কর্ষণীয় সুবিধা পাবেন ৷

২০১৫ সালের ২৫ জুন এই স্কিম চালু ক’রা হয়েছিল ৷ কে’ন্দ্র স’রকারের এই যোজনায় সাবসিডি স্কিম ৩১ মা’র্চ ২০২১ পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে ৷ সামান্য রোজগার যাদের তাদের জন্য এই স্কিম নিয়ে এসেছে কে’ন্দ্র স’রকার।

যাদের আয় ৩ লক্ষ টাকার কম, তারা বুকিং করলে এই বাড়ি দেওয়া হবে ৷ রাজ্যের সমস্ত গরিব পরিবাররা মাত্র ৩.৫০ লক্ষ টাকায় এই বাড়ি পেয়ে যাবেন ৷

৩ বছরের মধ্যে তাদের সমস্ত টাকা আবার ফেরতও দিয়ে দিতে হবে ৷ একদম শুরুর দিকে উত্তরপ্রদেশের হাউজিং ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিল ৫ বছরের মেয়াদে বাড়ি দেওয়ার প্র’স্তা’ব দিয়েছিল ৷ কিন্তু বর্তমানে তা কমিয়ে ৩ বছর ক’রা হয়েছে ৷ অনলাইনেই পিএমও-র ওয়েবসাইডে গিয়েই আবেদন ক’রতে পারবেন গ্রাহক’রা।

আধার নম্বর,আধার কার্ডে থাকা নাম,নাম, ঠিকানা, পরিবারের সদস্যদের নাম সহ সমস্ত ত’থ্য দিয়ে সাবমিট ক’রতে হবে। আবেদব ক’রার জন্য মাত্র ১০০ টাকা ক’রে দিতে হবে এবং রেজিস্ট্রেশনের জন্য ৫০০০ টাকা ব্যাঙ্কে গিয়ে জমা ক’রতে হবে৷

Advertisement

Check Also

মাত্র চার লাখ টাকায় যেভাবে 3 বেডরুম সহ মনের মতো বাড়ি বানাবেন

Advertisement আমা’দের মধ্যে অনেকেই বিভিন্ন রকমের সখ থেকে থাকে । তাদের মধ্যে একটি অন্যতম শখ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *