মেয়র আতিকুল বললেন, ‘নো সরি, থানায় যাবে গাড়ি’

প্রতিনিয়ত কত রকমের ঘটনা ঘটে চলেছে আমাদের চারিপাশে। কিছু ভাল তো কিছু মন্দ। তার সব আমাদের জানা সম্ভব না হলেও মিডিয়ার কল্যাণে তা আমরা সহাসাই জেনে যেতে পারি।

রাজধানীতে সন্ধ্যা পেরিয়ে রাত নামছে সবে। এলইডি বাতির আলোয় আলোকিত ব্যস্ত সড়ক। হঠাৎই দেখা গেল, উত্তরার ৪ নম্বর সেক্টরের ২ নম্বর সড়কে বেশ যানজট। এখানে রাস্তা দখল করে গাড়ি পা;র্কিং করে রেখেছেন এক প্রাইভেট কার চালক। এ কারণেই সৃষ্টি হয়েছে যানজট।

যা;নজ;টে থেমে আছে পেছনের গাড়িগুলো। এ অবস্থায় একটি গাড়ি থেকে নেমে রাস্তায় পা;র্কিং করা গাড়িটির দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন এক ব্যক্তি। ততক্ষণে আশপাশে উ;ৎসুক জনতার ভি;ড় লেগে গেছে।

দেখা গেল, গাড়ি থেকে নেমে যাওয়া ওই ব্যক্তি আর কেউ নন; ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। এমন দৃশ্য দেখে আশপাশের জড়ো হওয়া মানুষের প্রশংসায় ভাসতে থাকেন তিনি।

চালককে উদ্দেশ্য করে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলতে থাকেন, ‘রাস্তার মধ্যে গাড়ি রাখবেন আর এই শহরের মানুষ যা;নজ;টে ক;ষ্ট পাবে, না কী? আমি কিছুই শুনতে চাই না, এই গাড়ি এখন থা;নায় যাবে। রাস্তায় গাড়ি রেখে জনগণকে ক;ষ্ট দেবে? র‍্যা;কার আসবে, গাড়ি থানায় যাবে। নো, নো সরি, থানায় যাবে গাড়ি।’

এমন জনসম্পৃক্ত কাজ দেখে সাধারণ পথচারীরা ধন্যবাদ জানান মেয়র আতিকুল ইসলামকে। পাশাপাশি তারা বলেন, ‘জনগণের সমস্যা সমাধানে এমন মেয়রই আমাদের জন্য যো;গ্য।’

এ বিষয়ে মেয়র আতিকুলের সহকারী একান্ত সচিব রিসাদ মোর্শেদ বলেন, ‘নগরবাসীকে শত জ;ঞ্জা;ল এবং দুর্ভোগ থেকে মুক্ত করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন মেয়র।

দিনরাত বিরাম নেই তার। নাগরিক জীবনের যেকোনো দুর্ভোগ নজরে এলেই সরাসরি অ্যাকশন। এমনই একটি ঘটনা ঘটলো আজ (বুধবার)।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *