জলের নীচে ছজনা তলায় নিয়ম মেনে বিয়ে, ঝড়ের বেগে ভাইরাল ভিডিও

আমরা সকলেই জানি মন্ত্র পড়ে, সাত পাকে ঘুরে সাধারণত ছাদনাতলায় বসে বিয়ের আসর। তবে ধরুন যদি এমন হয়, ছাদনাতলার পরিবর্তে সেটি হয় সমুদ্রগর্ভ তখন? কি অবাক হচ্ছেন তো? তা অবশ্য হওয়ারই কথা।

তবে এমনটাই করে চমকে দিলেন তামিলনাড়ুর নবদম্পতি। আসলে ছোটো থেকেই সাঁতার কাটতে ভালোবাসতেন ভি চিন্নাদুরাই। তাইতো সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বিয়ে করলে জলের নীচেই করবেন।

পরিবার ও কনেকে জানাতে তারাও রাজি হয়ে যান। গত মঙ্গলবার, জলের নীচে বিয়ে হয় ভি চিন্নাদুরাই ও এস শ্বেতার। পিঠে ছিল সিলিন্ডার, চোখে চশমা। তবে পরনে ছিল শাড়ি ও ধুতি-পাঞ্জাবী।

পেশায় ইঞ্জিনিয়ার ওই যুগল মালাবদল ও অন্যান্য রীতি মেনেই সম্পন্ন করেছেন বিবাহ। তামিলনাড়ুর নীলাঙ্কারাই সমুদ্র উপকূল থেকে খানিকটা দূরে সমুদ্রগর্ভের প্রায় ৬০ ফুট নীচে গিয়ে বিয়ে করেছেন তারা।

তবে পাশাপাশি সকলের উদ্দেশ্যে প্লাস্টিকমুক্ত জলাশয় তৈরির বার্তাও দিয়েছেন। জানা গিয়েছে, সকাল সাড়ে ৭টায় তারা দুজন জলের তলায় যান। যদিও বরের স্কুবা ডাইভিং বা সাঁতারের শখ ছিল কিন্তু কনে জানতেন না।

বিয়ের কারণেই এক মাস আগে থেকে অনুশীলন করেন তিনি। একটি সাক্ষাৎকারে শ্বেতা জানিয়েছেন, ছেলের বাড়ি থেকে এই প্রস্তাব আসার পর প্রথম দিকে তিনি দ্বিধাগ্রস্থ হয়ে পড়েছিলেন। পরে অবশ্য তিনি রাজি হয়ে অনুশীলন নেন।

এই বিষয়ে ভি চিন্নাদুরাই জানিয়েছেন, বিগত ১২ বছর ধরে তিনি স্কুবা ডাইভিং করছেন। তাই চেয়েছিলেন বিয়েও করবেন জলের নীচে। মঙ্গলবার জলের নীচে তারা মোট ৪৫ মিনিট ছিলেন।

মাল্যদান হওয়ার পর একে অপরের হাত ধরে কিছুক্ষণ সময় কাটান সেখানেই। সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানটি জলের তলাতেই রেকর্ডিং করা হয়েছে। বিয়ের পর তারা জানান, এই কাজের মধ্যে দিয়ে তারা সমাজকে প্লাস্টিকমুক্ত জলাশয় তৈরি করার বার্তা দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *