সততা ও বন্ধুত্ব নিয়ে একে অপরকে খোঁচা দুজনের, তবে কি সম্পর্কে ইতি টানলেন মিমি-নুসরাত?

Sabbir Rahman 0

রুপোলী দুনিয়ার দুই প্রিয় বান্ধবীর মধ্যে জোর সং’ঘা’ত বেঁধেছে। ইনস্টাগ্রামের পোস্ট মা’রফত একে অ’পরের মতামতের বিরোধিতা করছেন তারা। অথচ তাদের বন্ধুত্বের সম্পর্কের নিদান দেওয়া হয় সর্বদা!

মিমি চক্রবর্তী এবং নুসরাত জাহান, টলি দুনিয়ার অত্যন্ত জনপ্রিয় অ’ভিনেত্রী, জনপ্রিয় তৃণমূল সাংসদ এবং সর্বোপরি দুজনেই দুজনের খুব ভালো বন্ধু। কি এমন ঘটলো যে ইনস্টাগ্রামে বাক যু’দ্ধে নামলেন তারা? প্রশ্ন উঠছে নেটিজেনদের মনে।

গ্ল্যামা’র ইন্ডাস্ট্রির দুই “সোল সিস্টার” এর তর্ক-বিতর্কে সূত্রপাত ঘটে যখন সম্প্রতি ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে মিমি চক্রবর্তী একটি পোস্ট শেয়ার করেন। সেখানে মিমি লিখেছিলেন, “মানুষ যদি সততার পথে থাকেন, তাহলে তাকে সকলের কাছে অ’প্রিয় ‘হতে হয়! মিথ্যাচার করলেই সকলের প্রিয় হওয়া যায়!”

মিমি কাকে উদ্দেশ্য করে এমন কথা লিখেছিলেন, তা অবশ্য স্পষ্ট হয়নি। এদিকে নুসরাতও ইনস্টাগ্রামে এমনই একটি পোস্ট করে বসেছেন। তিনি বলছেন, “কোনো কোনো মানুষ সামান্য স্পটলাইটে থাকার জন্য দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বকেও ঠকাতে পারেন!”

আরেকটি পোস্টে তিনি লিখেছেন, “জীবনে কে তোমা’র সামনে সততা দেখাচ্ছে, তা বড় কথা নয়। তোমা’র অনুপস্থিতিতে কে সততা দেখাচ্ছে, সেটাই বড় কথা!”

মিমি এবং নুসরাতের ইনস্টাগ্রামে পোস্ট দেখে স্বভাবতই নেটিজেনদের মনে অনেক প্রশ্নই উঠছে। কি এমন ঘটলো যে দুই বান্ধবীর মতের এত অমিল ঘটলো? মিমি এবং নুসরাতের বন্ধুত্বের সম্পর্ক কি এবার ভা’ঙ্গনের মুখে পড়তে চলেছে? এ বি’ষয়ে আপাতত মিমি অথবা নুসরাত, কেউই কোনো কথা বলছেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *