বাচ্চা জন্ম দেওয়ার সাথে সাথেই তাকে খে-য়ে নিলো সিং-হ, অনেক চেষ্টা করেও সন্তানকে বাঁ-চাতে পারলোনা মোষ, ভাইরাল ভিডিও!

একা জী-বন বা-জি রে-খে করলো ল-ড়াই হিং-স্র সিং-হের এর সাথে । নিজের সন্তানের আ-র্ত-নাদ যেকোনো মা এর কাছে ক-ষ্ট-কর । সেটা মানুষ হোক বা জী-ব-জ-ন্তু । আমাদের প্রতিনিয়ত জীবনে এমন অনেক ঘটনাই ঘটে থাকে যা আমাদের হাসায়, কাঁ-দায়, বা অনুপ্রেরণা জাগায়।

তার সাথে সাথে আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায় যুক্ত এমন অনেক ভিডিও বা ছবি ভাইরাল হয় যা কখনো কখনো আমাদের অনুপ্রেরণা জায়গায় ,কখনো বা আমাদের হাসতে শেখায়, আবার কখনো আমাদর শিক্ষা দেয় বু-ক চি-তিয়ে শে-ষ নিঃ-শ্বাস অ-বধি ল-ড়াই এর ।

বর্তমানে সামাজিক মাধ্যমে এরোম অনেক ছোট বড় ঘটনা আমাদের নজরে আসে ।এ প্রজন্মের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ শব্দটি যেটি সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে বা সামাজিক মাধ্যম এর সাথে যুক্ত সেটি হল” ভাইরাল ” ।

এই ভাইরাল শব্দের মাধ্যমে আমরা সাধারণত কোন কিছুর গুরুত্ব বিচার করে থাকি । মা শব্দটি সবথেকে ছোট হলেও এটি পৃথিবীর সবথেকে শ-ক্তি-শা-লী এবং সাহসী একটি শব্দ। সে মানুষ হোক বা পশুপাখি বা জ-ন্তু ।

এই শব্দের মধ্যে জ-ড়িয়ে আ-ছে আ-বেগ, ভালোবাসা,ল-ড়া-ই ক-রার শ-ক্তি । কিন্তু এর সাথে মায়ের কি সম্পর্ক তা এখনো ঠিক বুঝে উঠতে পারছেন না তাইতো ? সম্প্রতি ফেসবুক একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

সেই ভিডিওতে দেখা যায় এক সাহসী মায়ের ছবি। একটি সাহসী বুনো মহিষ মা এর ছবি । সাধারণত সিং-হ হল এমন এক ধরনের হিং-স্র প্রা-ণী যাকে জ-ঙ্গ-লের রাজা হিসেবে গণ্য করা হয় ।

কারণ এর আ-ক্র-মণ করার ক্ষ-ম-তা অন্যান্য প্রাণীর থেকে বেশি হয় এবং দ্রু-ত-গ-তিতে আ-ক্র-ম-ণ করতে পারে বলে সহজেই শি-কার হা-ত-ছা-ড়া হয় না । কিন্তু সম্প্রতি যে ভিডিওটি সামনে উঠে এসেছে সেটি রীতিমত অ-বাক ক-রার মতন ।

কারণ এই ধরনের ভিডিও খুব কম দেখা যায়। ভিডিওতে দেখা যায় যে বু-নো ম-হিষের জন্ম দিয়েছে একটি তার বাচ্চাকে এবং সে তার বাচ্চাকে একটি জলাশয়ের ধার দিয়ে হেঁটে চলে যাচ্ছে ।

কিন্তু জ-ঙ্গলের -মধ্যে ব-সে ছি-ল দু-টি ক্ষু-ধার্ত সিং-হ । এবং তারা তাদের ওই বা-চ্চাকে আ-ক্র-মণ ক-রতে যা-য় । কিন্তু রু-খে দাঁড়ায় তার মা । শে-ষ-মে-ষে তার মা যখন একা সবটা সামলে উঠতে পারছিল না ।

তখন তার মাকে সঙ্গ দেওয়ার জন্য সেখানে উপস্থিত হয় একদল আরো বুনো মহিষ । এবং তারা সবাই মিলে সেই বাচ্চাকে রক্ষা করে । এই ঘটনাটি ন-জির গ-ড়েছে নেট দুনিয়াতে । তার পাশাপাশি বি-রল-তম এই ঘটনাটি বারবার দেখার জন্য শেয়ার করে রেখেছে নিজের টাইমলাইনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *