ইন্টারভিউতে চেহারা নিয়ে উপহাস, অস্ত্রোপচার করিয়ে ভোল বদলালেন যুবক

চাকরির ইন্টারভিউ দিতে গিয়েছিলেন। কিন্তু দেখতে খারাপ হওয়ায় অনেকেই নাকি তাকে নিয়ে হাসাহাসি করেছিলেন। নিজেকে এভাবে ‘হাসির পাত্র’ ‘হতে দেখে খুবই খারাপ লেগেছিল। আর সেকারণেই প্লাস্টিক সা’র্জারি।

তাও একবারে থামেননি। ৯ বার প্লা’স্টিক সা’র্জারি করিয়েছেন। হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও এমনই কাণ্ড ঘটিয়েছেন ভিয়েতনামের যুবক ডো কোয়েইন।

২৬ বছর বয়সী ডো টিকটক অ্যাকাউন্টে নিজের আগের ছবি এবং ৯টি প্লাস্টিক সা’র্জারির পর বর্তমান ছবি পোস্ট করেন। আর সেটা দেখার পরই অবাক হয়ে যান নেটিজেনরা। কারণ দু’টি ছবিই ছিল ভিন্ন।

এরপরই এই নিয়ে নেটিজেনরা তাকে এই বি’ষয়ে প্রশ্ন করতে থাকেন। শেষপর্যন্ত ডো নিজেই সত্যিটাও জানিয়ে দেন। আসলে একটি চাকরির ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে হাসির পাত্রে পরিণত হয়েছিলেন তিনি।

তাঁকে দেখতে খারাপ হওয়ায় সেখানে উপস্থিত অনেকেই তাঁর উপর হেসেছিলেন। এই কারণেই প্লা’স্টিক সা’র্জারির করার বি’ষয়ে মনস্থির করেন। শেষ পর্যন্ত ৪০০ মিলিয়ন ডং ১৫ লাখ টাকা খরচ করে ন’টি প্লা’স্টিক সা’র্জারি করান।

যার মধ্যে ছিল রিনোপ্লাস্টি , চিবুক, ঠোঁটের অ’স্ত্রোপচারও। এছাড়া করিয়েছেন চোখের জন্য সা’র্জারি করিয়েছেন তিনি। এক সাক্ষাৎকারে তিনি আরও জানান, এই অ’স্ত্রোপচারের পুরো টাকাই নিজের সঞ্চয় থেকে ব্যয় করেছেন তিনি।

প্রথমবার অ’স্ত্রোপচারের পর কেমন ছিল অ’ভিজ্ঞতা? সেই প্রশ্নের উত্তরে ডো বলেন, প্রথমবার অ’স্ত্রোপচার করিয়ে বাড়ি আসার পর আমা’র মা-বাবাও আমাকে চিনতে পারেনি। তবে এই ধরনের প্লা’স্টিক সা’র্জারি করায় কিছুটা অনুত’প্ত ও তিনি। তবে নিজের ফলোয়ারদের তাr পরামর’্শ, মনে যা ইচ্ছে তাই করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *