সৎ মা করিনার সাথে কেমন স’ম্পর্ক তা নিয়ে অবশেষে মুখ খু’ললেন সারা!

সাধারণ মানুষের পাশাপাশি সেলেবদের জীবনেও দুঃখ কষ্ট আনন্দ ভালো লা’গা সবটাই আছে। কিন্তু তাদের পান থেকে চুন খসলেই সেলবদের অন্দরমহলের যেকোনো তথ্য হয়ে যায় ভাইরাল।

আর ভাইরাল হয়ে যাওয়ার ভয় অপছন্দের জিনিসকেও হাঁসি মুখে মেনে নিতে হয় তাদেরকে। ঠিক যেমন চোখের সামনে বাবার বিয়ে দে’খতে হয়েছে সারা আলি খানকে হাঁসিমুখে।

সারার বাবা সইফকে বিয়ে করার পর স’ম্পর্কের দিক থেকে করিনা কাপুর খান হলেন সারা আলি খানের সৎমা। তবে সৎ মা’র স’ঙ্গে সারার স’ম্পর্ক ঠিক কেমন?

সইফ আলি ও তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী অমৃ’তা সিংহের মেয়ে সারা আলি খান বলিউডে বেশ হইচই ফে’লে দিয়েছেন ইতিমধ্যেই। তবে, একদিকে করিনা সারার সৎ মা অন্যদিকে সারা ও করিনা হলেন দুজন অসমবয়সী ব’ন্ধু।

সইফ আলীর খানের স’ঙ্গে কারিনা কাপুরের বিয়ের পর থেকেই প্রথম স্ত্রীর ঘরের মেয়ে সারার স’ঙ্গে বেশ ভালো স’ম্পর্ক গড়ে ওঠে বেবো’র। সইফের পারিবারিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাঁদের এক স’ঙ্গে দেখা গিয়েছে অনেবারই।

সারার আর তার সৎ মায়ের কেমন স’ম্পর্ক সেই নিয়ে অবশেষে মুখ খু’লেছেন অভিনেত্রী। অভিনেত্রীর কথায়, করিনা কখনও তাঁদের মা হয়ে ওঠার চেষ্টা করেননি।

আর তাই তাঁদের মধ্যে কখনও কোনও স’মস্যা হয়নি। সারা করিনার স’ম্পর্ক মজবুত রাখার জন্য তিনটি কারণ আছে। প্রথমত, করিনা কখনও চেষ্টাই করেন না মা হয়ে ওঠার।

দ্বিতীয়ত, তাঁদের মায়ের জায়গা কেউ নিতে পারবে না কখনও। আর তৃতীয়ত, করিনা ভিষণ প্রফেশনাল সেই কারণে তাদের মধ্যে আজও সুস’ম্পর্ক। সারাকে তার মা অর্থাৎ সইফের প্রথম পক্ষের স্ত্রী অমৃ’তা তাঁদের বুঝিয়েছেন, মায়ের জায়গা কেউ নিতে পারে না। তাই অমৃ’তাই তাঁদের মা থাকবে আজীবন।

বাবার ভালোবাসা নিয়েও বেশ স্পষ্টবাদী সারা। সারার দা’বি, তাঁকে বাবা সব থেকে বেশি ভালোবাসে। তার জন্য একটা কারণও দেখিয়েছে অভিনেত্রী। সারার কথায় তার স’ঙ্গে সইফের পরিচয় সব থেকে বেশি দিনের। তার ভাইয়ের থেকে পাঁচ বছর বেশি, তৈমুরের থেকে ২১ বছরের বেশি। সইফের পাশাপাশি সে তার সৎ মা করিনাকেও যথেষ্ঠ ভালোবাসে।

কারণ সে তার বাবাকে ভালো রেখেছে বলে। বাইরে যাই রটুক না কেন তাদের পরিবার সকলের সাথে সকলের সুস’ম্পর্ক বলেই দা’বি অভিনেত্রীর। আর ভাইরাল হয়ে যাওয়ার ভয় অপছন্দের জিনিসকেও হাঁসি মুখে মেনে নিতে হয় তাদেরকে। ঠিক যেমন চোখের সামনে বাবার বিয়ে দে’খতে হয়েছে সারা আলি খানকে হাঁসিমুখে।

সারার বাবা সইফকে বিয়ে করার পর স’ম্পর্কের দিক থেকে করিনা কাপুর খান হলেন সারা আলি খানের সৎমা। তবে সৎ মা’র স’ঙ্গে সারার স’ম্পর্ক ঠিক কেমন? সইফ আলি ও তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী অমৃ’তা সিংহের মেয়ে সারা আলি খান বলিউডে বেশ হইচই ফে’লে দিয়েছেন ইতিমধ্যেই। তবে, একদিকে করিনা সারার সৎ মা অন্যদিকে সারা ও করিনা হলেন দুজন অসমবয়সী ব’ন্ধু।

সইফ আলীর খানের স’ঙ্গে কারিনা কাপুরের বিয়ের পর থেকেই প্রথম স্ত্রীর ঘরের মেয়ে সারার স’ঙ্গে বেশ ভালো স’ম্পর্ক গড়ে ওঠে বেবো’র। সইফের পারিবারিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাঁদের এক স’ঙ্গে দেখা গিয়েছে অনেবারই। সারার আর তার সৎ মায়ের কেমন স’ম্পর্ক সেই নিয়ে অবশেষে মুখ খু’লেছেন অভিনেত্রী। অভিনেত্রীর কথায়, করিনা কখনও তাঁদের মা হয়ে ওঠার চেষ্টা করেননি।

আর তাই তাঁদের মধ্যে কখনও কোনও স’মস্যা হয়নি। সারা করিনার স’ম্পর্ক মজবুত রাখার জন্য তিনটি কারণ আছে। প্রথমত, করিনা কখনও চেষ্টাই করেন না মা হয়ে ওঠার। দ্বিতীয়ত, তাঁদের মায়ের জায়গা কেউ নিতে পারবে না কখনও। আর তৃতীয়ত, করিনা ভিষণ প্রফেশনাল সেই কারণে তাদের মধ্যে আজও সুস’ম্পর্ক।

এমনকি সারাকে তার মা অর্থাৎ সইফের প্রথম পক্ষের স্ত্রী অমৃ’তা তাঁদের বুঝিয়েছেন, মায়ের জায়গা কেউ নিতে পারে না। তাই অমৃ’তাই তাঁদের মা থাকবে আজীবন। বাবার ভালোবাসা নিয়েও বেশ স্পষ্টবাদী সারা। সারার দা’বি, তাঁকে বাবা সব থেকে বেশি ভালোবাসে। তার জন্য একটা কারণও দেখিয়েছে অভিনেত্রী।

সারার কথায় তার স’ঙ্গে সইফের পরিচয় সব থেকে বেশি দিনের। তার ভাইয়ের থেকে পাঁচ বছর বেশি, তৈমুরের থেকে ২১ বছরের বেশি। সইফের পাশাপাশি সে তার সৎ মা করিনাকেও যথেষ্ঠ ভালোবাসে। কারণ সে তার বাবাকে ভালো রেখেছে বলে। বাইরে যাই রটুক না কেন তাদের পরিবার সকলের সাথে সকলের সুস’ম্পর্ক বলেই দা’বি অভিনেত্রীর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *