OMG! আগ্নেয়গিরির লাভায় ডিম ভাজতে গেলেন যুবক! তারপর…

বাঙালির স’ঙ্গে ওমলেটের সম্পর্ক নিয়ে নতুন করে কীই বা বলার আছে? পেটে খিদে চাগাড় দিলে কিংবা না দিলেও স্রেফ মনের খেয়ালে খাদ্যরসিকরা ডিম ভেজে খেতে বেজায় পছন্দ করেন।

বনভোজন বা পিকনিক, যে নামেই ডাকা হোক, ওমলেট সেখানে লোভনীয় এক চটজলদি পদ হয়ে ওঠে। কিন্তু যতই খেয়াল চাপুক, আ’গ্নেয়গিরির লাভার (Lava) মধ্যে প্যান চাপিয়ে তাতে ডিমভাজা (Omelette) খাওয়ার কথা কে আর ভাবতে পারেন?

যতই অবাস্তব মনে হোক, এমন কাণ্ডই ঘটালেন আইসল্যান্ডের (Iceland) এক যুবক। যদিও শেষরক্ষা হল না। লাভার গনগনে আঁচে ওমলেট আর শুয়োরের মাংস রান্না করার মতলব করলেন তিনি। যদিও ‘তার পর কী হইল জানে শ্যামলাল।’

ঘটনাটা খুলেই বলা যাক। আইসল্যান্ডের ফাগরাডালসফজাল আ’গ্নেয়গিরি ৮০০ বছর পরে জেগে উঠেছে গত ১৯ মা’র্চ। ভ’য়াবহ অ’গ্ন্যুৎপাতের ফলে লাভা ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র। যার ধাক্কায় মাটিতে রীতিমতো কাঁপুনি দেখা দিয়েছে।

তবে এখনও পর্যন্ত এর থেকে স্থানীয় জনতাদের তেমন ভয়ের কিছু নেই বলেই মনে করা হচ্ছে। লাভা অবশ্য ছড়িয়ে পড়েছে প্রায় ২০০টি ফুটবল মাঠের সমান আয়তন এলাকায়। আকাশ হয়ে উঠেছে টকটকে লাল।

গত কয়েকদিনে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে ওই অ’গ্ন্যুৎপাত ও লাভা নিঃসরণের শয়ে শয়ে ছবি, ভিডিও। বিজ্ঞানী, সাংবাদিক থেকে শুরু করে স্থানীয় জনতার ক্যামেরায় তোলা নানা ছবি আপাতত ভাইরাল ভুবনগ্রামে।

তার মধ্যে একটি হল ড্রোনে তোলা অ’গ্ন্যুৎপাতের ভিডিও। আকাশপথ থেকে তোলা ওই ভিডিও দেখে চমকে উঠেছেন সকলে। এমনই নানা ভিডিও রয়েছে। তবে এই তালিকার সাম্প্রতিকতম ভিডিওটি নিঃসন্দে’হে বিচিত্র ও অভূ’ত পূর্ব!

সেখানে এক যুবককে দেখা গেল শুয়োরের মাংস ও ওমলেট রান্না করতে তিনি বেছে নিয়েছেন লাভাস্রোতকে। ভিডিওয় একটি প্যানে রান্না চাপাতে দেখা যাচ্ছে তাঁকে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ভাবে শেষ পর্যন্ত সেই রান্না আর হয়ে ওঠেনি। আস্ত প্যানটিকেই গিলে খেয়ে নেয় লাভার আগু’ন। চোখের সামনে তা দেখে ‘হতাশ হয়ে ওই যুবকের মন্তব্য, ”আমা’র দলের ছেলেদের খাবার বানাচ্ছিলাম। কিন্তু সব নষ্ট হয়ে গেল। রইল পড়ে কেবল স্যান্ডউইচ আর জল।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.