প্রচারে বেরিয়ে রে-গে গেলেন দেব, ‘কার কার মাস্ক আছে দেখি’, বলতেই ক্ষে-প’লো দেব, তু’মু-ল ভাইরাল ভিডিও!

প্রচার এর ফাঁকে একবিন্দুও সময় পাচ্ছেন না নিজের জন্য ভাবছেন না । নিজের শরীরের কথা বরং ভেবে চলেছেন দর্শক এবং সাধারণ মানুষদের কথা । আমি কার কথা বলতে চলেছি আপনারা হয়তো বুঝতে পেরেছেন ।

আর আমরা গর্বিত এমন একজন নেতা পেয়ে । খোকাবাবু যায় লাল জুতো পায় বড় বড় দিদিরা সব উকি মেরে যায় থেকে চ্যালেঞ্জ নিবি না সালা একসময় এই গানের লাইনে তো-ল-পাড় করে ফেলেছিল গোটা বাংলা ইন্ডাস্ট্রি।

তার জীবন কাহিনী সম্পর্কে জানেন খুব কম মানুষ আছে।এখন সেই মানুষটি এখন একজন অভিনেতার পাশাপাশি এই রাজ্যের দায়িত্ববান সাংসদ। আমি এই মুহূর্তে দেব বা দীপক অধিকারীর কথা বলছি।

অন্যান্য বাকি সকল প্রার্থী নেতা মন্ত্রীর বি-রুদ্ধে ছোটখাটো অ-ভিযোগ থাকলেও আজ অব্দি দীপক অধিকারী বা দেব এর বি-রুদ্ধে কোনো অ-ভি-যোগ শোনা যায়নি। সকলকে সাথে নিয়ে চলতে তিনি পছন্দ করেন। অভিনয় জগতের সাথে যুক্ত দেব বা দীপক অধিকারী কে আমরা প্রত্যেকেই চিনি ।

সেই দেবের অভিনয় রীতিমতো তাদের ম-ন্ত্র-মুগ্ধ করে তুলেছে সকলকে । কিন্তু প্রথম দিকের যাত্রা মোটেও ম-সৃণ ছিল না তার । আমরা যারা অভিনেতা-অভিনেত্রীদের জীবন কাহিনী জানার জন্য আগ্রহী হয়ে থাকি তারা প্রতিনিয়ত খোঁজ করে চলি যে তাদের জীবনে কি কি ঘটনা ঘটেছে ।

প্রথম দিকে তিনি মুম্বাইয়ের কর্মরত ছিলেন এবং একটি ছবিতে অভিনয় করার জন্য ডাক পেলেন । তিনি মুম্বাই থেকে ট্রেন ধরে কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা দেন । কিন্তু মাঝখানের নাগপুর স্টেশন থেকে নেমে যেতে হয় কারণ পরিচালকের ফোন আসে

দেবের কাছে এবং সেখান থেকে জানানো হয় যে ছবিটি আর হচ্ছে না । ভে-ঙ্গে যাই তার এতদিনের স্বপ্ন। ২০০৬ সালে প্রথম ছবি মুক্তি পায় যার নাম অগ্নি শপথ । কিন্তু সেই ছবিটি ভাল রকম সাফল্য আনতে পারেনি ।

অবশেষে রবি কিনাগির পরিচালনার আই লাভ ইউ সিনেমার মাধ্যমে নিজেকে সফল অভিনেতা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন । এবং তারপর একের পর এক হিট ছবি দিয়ে রীতিমত জনপ্রিয়তার তুঙ্গে পৌঁছায় আজকের দেব ।

যেহেতু অভিনেতার পাশাপাশি তিনি একজন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ববান সাংসদ । তাই তার উপর দায়িত্ব কিছুটা হলেও থেকে থাকে । এবারে বিধানসভা ভোটে সভা করতে দেখা গেল দীপক অধিকারী কে ।

প্রতি বারের তুলনায় এবারের তার সভাতে প্রচুর মানুষের জনসমাগম হয়েছিল । কিন্তু যেহেতু পুনরায় দেশের মধ্যে ম-হা-মা-রী প্র-কোপ দেখা দিচ্ছে তাই চিন্তিত দেব ।

এবং তার জন্যই তিনি সামনে থাকা সকল সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন যে দয়া করে আপনারা প্রত্যেকে মাস্ক পড়ে নেবেন । কাদের কাদের কাছে মাছ নেই তারা হাত তুলুন। যাদের কাছে রয়েছে তারা অতি অবশ্যই মাস্ক পড়ে নিন ।

কারণ ভোট আসবে ভোট যাবে আপনাদেরকে বেঁচে থাকতে হবে । তাঁর এই কথাটা অন্যান্য সকল প্রার্থীর বা সাংসদের থেকে মানুষের মনকে যথেষ্ট পরিমাণে গভীরে স্পর্শ করেছে এমনটা বলা যেতেই পারে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.