যে কারণে বাজেয়াপ্ত করা হলো সুয়েজ খালে আটকে পড়া সেই জাহাজ

ঝড়ের কবলে পড়ে মিশরের সুয়েজ খালে আটকে পড়া বিশাল আকৃতির জাহাজ এভার গিভেনকে বাজেয়াপ্ত করেছে মিশর সরকার। ক্ষতিপূরণের ৯০০ মিলিয়ন ডলার না দেয়া পর্যন্ত জাহাজটি মিশরের অধীনে থাকবে।

আদালতের নির্দেশের পরই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এক বিবৃতিতে সুয়েজ খাল কর্তৃপক্ষ এসব তথ্য জানায়। কর্তৃপক্ষের দাবি, সুয়েজ খালে জাহাজটি এক সপ্তাহ আটকে থাকার কারণে যে ক্ষতি হয়েছে তা ১০০ কোটি ডলারের মত হবে।

জাহাজটি বিশ্ব বাণিজ্যের গুরুত্বপূর্ণ পথকে অবরুদ্ধ করেছিল। এভার গিভেনের জাপানি মালিক শোয়েই কাইজেন কাইশা লিমিটেড জানিয়েছে, মিসরের একটি আদালতের কাছ থেকে আদেশ পাওয়ার পরে খাল কর্তৃপক্ষ জাহাজটি নিয়ে যায়।

সংস্থাটির মুখপাত্র রিউ মুরাকোশি বলেন, ‘তারা এখনও আমাদের সঙ্গে কথা বলছে। আমরা ক্ষতিপূরণের বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাব।’

সুয়েজ খাল কর্তৃপক্ষের প্রধান ওসামা রাবি জানিয়েছেন, এভার গিভেন জাহাজটি ক্ষতিপূরণের ৯০০ মিলিয়ন ডলার দিতে ব্যর্থ হওয়ায়, সেটিকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

তবে অপর একটি সূত্রের মতে, আপাতত জাহাজটির জাপানি মালিক, সেটির সংস্থা, ইনসিওরেন্স কোম্পানি এবং সুয়েজ খাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ক্ষতিপূরণের অর্থ নিয়ে আলোচনাও চলছে।

এর আগে গত ২৩ মার্চ এভার গিভেন জাহাজটি সুয়েজ খালে আটকে পড়েছিল। ফলে দু’দিক থেকে আটকে পড়েছিল কয়েকশ’ পণ্যবাহী জাহাজ। টানা এক সপ্তাহের প্রাণান্ত চেষ্টায় জাহাজটিকে সোজা করান যায়। কিন্তু ততদিনে মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার ক্ষতি হয় সুয়েজ খাল কর্তৃপক্ষের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.