রেল লাইনে বিশাল আকৃতির সা-প লাইন আটকে বসে রইলো, ঘটল বি-পত্তি, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় প্রতিদিনই নানারকম ভিডিও ভাইরাল হয়ে থাকে। তার মধ্যে কোনটি বেশ মজার হয়, কোনটি শিক্ষামূলক, বা কিছু ভিডিও সত্যিই আমাদের অবাক করে দেয়। মানুষের সাথে সাথে পশুপাখিরাও পিছিয়ে নেই এই দৌড়ে।

তাদের মজার ভিডিও আমাদের অত্যন্ত আনন্দ দেয়। কিন্তু কিছু কিছু ভিডিও সত্যিই দেখলে শিহরিত হতে হয়। কিছুদিন আগে ভাইরাল হয়েছিল তিন সা-পের দুর্ধ-র্ষ ল-ড়াই, যা দেখে অবাক হয়ে গিয়েছিলেন দর্শক।

এছাড়াও ভাইরাল হয়েছিল নিজের সন্তানদের বাঁ;চাতে হরিণ মায়ের নিজেকে চি-তাবা-ঘ এদের হাতে সঁপে দেওয়া, মায়ের এই আত্মত্যাগ কাঁদিয়েছিল গোটা পৃথিবীকে। পশুপাখিদের ও মানুষের মতোই অনুভূতি আছে,

শুধু তারা তাদের অনুভূতি গুলি সকলের সামনে মানুষের মত ব্যক্ত করতে পারে না। তাদের মতো ভালোবাসা পাওয়া সত্যিই দুর্লভ। কিন্তু সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হবার সব ভিডিও গুলোই কিন্তু ভালোবাসা প্রদর্শন করে না,

এর মধ্যে হিংসা অত্যাচার ও হত্যার মতো অনেক ভিডিও কিন্তু ভাইরাল হয়। পশুপাখিদের সমাজেও একই জিনিস দেখা যায়, পেটের জন্য সবাই কাতর। ক্ষুধা এমন এক প্রবৃত্তি ,যাকে ঠান্ডা করতে আরেক পশুকে ভক্ষণ করেই তবে মাংসাশী প্রাণীর ক্ষুদা নিবৃত্তি করতে হয়।

কিন্তু কথায় আছে “লোভে পাপ, পাপে মৃত্যু”।সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিওতে যেন এই কথাটি প্রমাণ দেখলাম আমরা। স-র্প জা;তি চি;রকালই র;হ;স্যময়, কথিত আছে এরা সম্মোহনী শক্তির মাধ্যমে প;শুপা;খিদের স্বীকার করে।

যদিও বৈজ্ঞানিক মতে তা সত্যি নয় বলেই প্রমাণিত হয়েছে। এদের মধ্যে ছোট ছোট সা-পগুলি ব্যাং, পোকা প্রভৃতি খেয়ে বাঁচলেও বড় সা-পেদের অন্যান্য বড় পশু গিলে খেয়ে তবেই খিদে মেটাতে হয়।

অতীতে পাঁচ মাথাওয়ালা সা-পের কথা আমরা সবাই শুনেছি। কিন্তু সে শুধু মাত্র মিথলজির পাতাতেই আবদ্ধ।বিশেষ করে গ্রীক মিথলজির কাহিনীতে একাধিক মাথা যুক্ত হাইড্রার কথা আমরা জানি, যাকে বীর পারসিয়াস মেডুসার মুণ্ডের সাহায্যে বধ করেন।

কিন্তু বাস্তবের সাথে তার কোনো প্রমাণ নেই। কিন্তু হঠাৎই দেখা গেলো এরকম পাঁচ মাথাওয়ালা একটি সা-পকে। সম্প্রতি একটি ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি বড় পাঁচ মাথাওয়ালা সা-প রেললাইনের উপর বসে রয়েছে।

হঠাৎই অপর দিক থেকে দ্রুত গতিতে ধেয়ে আসছে একটি ট্রেন। যেকোনো মুহূর্তে ট্রেনের সাথে সা-পটির ধাক্কা লাগার সম্ভাবনা কিন্তু হঠাৎ করে দেখা গেল সা-পটি যেন অদৃশ্য হয়ে গেলো লাইনের উপর থেকে।

কিন্তু খুব ভালো করে দেখলে দেখা যায় এটি পুরোটাই একটি অ্যানিমেশন। বাস্তবে এরকম ঘটনা কোন মতেই সম্ভব নয়। কিন্তু অ্যানিমেশনটি এতটাই সুন্দর হয়েছে যা দেখে ঘটনাটিকে পুরো বাস্তব মনে হচ্ছে। অ্যানিমেশনে শিল্পীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে গেছেন দর্শক।

ভিডিওটি চারিদিকে হয়ে গেছে ভাইরাল। শিল্পীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ সকলে। এমনকি অধিকাংশ মানুষই থেকে বাস্তব ভেবে কমেন্ট করা শুরু করেছিলেন পরে সেটি এনিমেশন ভেবে নিজেরাই হেসে ফেলেন তার। কিন্তু শিল্পীর অসাধারণ কাজ প্রদর্শিত হয়েছে এই ভিডিওটিতে। শিল্পীর প্রশংসা করেছেন সবাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.