ডিভোর্সের টাকা নিয়ে বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ ধনী নারী হবেন মেলিন্ডা

স্বামী বিল গেটসের সঙ্গে ডিভোর্সের পর বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ ধনী নারীতে পরিণত হতে পারেন মেলিন্ডা গেটস। মানবাধিকার ও নারী অধিকার রক্ষায় কাজ করা মেলিন্ডার সম্পদের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে ৭ হাজার ৩০০ কোটি মার্কিন ডলারে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে একথা জানিয়েছে। সোমবার (৩ মে) যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের সিয়াটল কিং কাউন্টি সুপিরিয়র আদালতে ডিভোর্সের আবেদন করেন।

আবেদনে তিনি বলেন, মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও পৃথিবীর অন্যতম শীর্ষ ধনী ব্যক্তি মাল্টিবিলিয়নার বিল গেটসের সঙ্গে তার বিয়ে ‘অপ্রত্যাশিতভাবে ভেঙে’ গেছে।

আর তাই তাদের দুজনের ১৪ হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার সমমূল্যের সম্পদ দু’জনের মধ্যে সমানভাবে ভাগ করে দেওয়ার আবেদনও করেন আদালতের কাছে।

গার্ডিয়ান বলছে, ডিভোর্সের কারণে এই বিপুল পরিমাণ সম্পদের ৫০-৫০ ভাগাভাগি সম্ভব। কারণ আদালতে ডিভোর্সের আবেদনের সময় দাখিল করা নথিতে বিয়ের চুক্তিপত্র বা ‘প্রিনাপশাল এগ্রিমেন্ট’ নেই।

অর্থাৎ ১৯৯৪ সালে বিয়ের সময় প্রিনাপশাল এগ্রিমেন্ট স্বাক্ষর করেননি বিল ও মেলিন্ডা গেটস। আর যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্যের নিয়ম অনুযায়ী, প্রিনাপশাল এগ্রিমেন্ট না থাকলে ডিভোর্স প্রত্যাশী দম্পতির মধ্যে সম্পদ ভাগ হবে সমান ভিত্তিতে।

মেলিন্ডা গেটস সম্প্রতি নিজের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টগুলোতে নাম পরিবর্তন করে রেখেছেন মেলিন্ডা ফ্রেঞ্চ গেটস। আদালতের সিদ্ধান্তের মাধ্যমে তিনি যদি সত্যি সত্যিই ৭ হাজার ৩০০ কোটি মার্কিন ডলারের সম্পদের মালিক বনে যান,

তাহলে তিনি হবেন বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ ধনী নারী। তার ওপরে অবস্থান করবেন কেবল ল’রিয়ালের মালিক ফ্রাঙ্কয়িজ বেটেনকোর্ট। ৬৭ বছর বয়সী বেটেনকোর্টের সম্পদের পরিমাণ ৮ হাজার ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার।

ব্লুমবার্গ বিলিয়নার ইনডেক্সের তথ্য অনুযায়ী, মাইক্রোসফট করপোরেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ৬৫ বছর বয়সী বিল গেটস বর্তমানে বিশ্বের চতুর্থ শীর্ষ ধনী। তার সম্পদের মোট পরিমাণ প্রায় ১৪ হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার।

অন্যদিকে, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের কো-চেয়ার ৫৬ বছর বয়সী মেলিন্ডা ফ্রেঞ্চ গেটস বৈশ্বিক স্বাস্থ্য ইস্যু ও নারীদের সমঅধিকার প্রতিষ্ঠায় বিশ্বব্যাপী কাজ করছেন। সূত্র: গার্ডিয়ান

Leave a Reply

Your email address will not be published.