কোটি টাকা দান করেও যে কারনে কটূক্তি শুনছেন অমিতাভ বচ্চন! অবশেষে দানের তালিকা প্রকাশ করে লজ্জিত ‘বিগ বি’

একসময় গোটা বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে একাই রাজ করতেন তিনি। তার অভিনয় দক্ষতা মানুষের কাছে তাকে জনপ্রিয় করে তুলেছিল। তিনি আর কেউ নন, তিনি হলেন বলিউডের বিগ বি অমিতাভ বচ্চন(Amitabh Bachchan) ।

তার বর্তমানে ৭৮ বছর বয়স কিন্তু নিজেকে তিনি বেশ ফিট রেখেছেন। এখনও তাকে টেলিভিশনের পর্দায় দেখা যায়। ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’ রিয়েলিটি শো-এ বিগ বি’কে নতুন সিজনের প্রমোটের জন্য দেখা গিয়েছে।

অমিতাভ বচ্চন সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ সক্রিয়। নিজের ছবি সহ নানান কথা সোশ্যাল হ্যান্ডেলে শেয়ার করে থাকেন তিনি। এহেন অমিতাভ বচ্চন বর্তমানে নিজে লজ্জিত বোধ করছেন।

কিন্তু এমন কী ঘটল যার জন্য তার এই প্রতিক্রিয়া? বর্তমানে করোনা প্রকোপের মধ্যে গোটা দেশ। প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে যেমন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা তেমনি মৃত্যুর লম্বা লাইনও দেখা যাচ্ছে।

করোনায় মৃত রোগীদের দাহ করার মতন পর্যাপ্ত কাঠও পাওয়া যাচ্ছে না। দেশের এমন অবস্থায় সাধারণ মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে বলিউডের একাংশ। মাঝেমধ্যেই অনেক সেলিব্রিটি নিজেদের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে সেই ছবিও পোস্ট করছেন যা ভাইরাল হয় যাচ্ছে নিমেষেই।

অনেকেই এর কারণে সোশ্যাল মিডিয়ায় বাহবা পাচ্ছেন। অমিতাভ বচ্চনও একইভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন কিন্তু তাকে ঘিরে সামাজিক মাধ্যমে কটাক্ষের শেষ নেই।

কিছু দিন আগে অমিতাভ বচ্চন দিল্লির ‘শ্রী গুরু তেগ বাহাদুর কোভিড কেয়ার সেন্টার’ এর জন্য ২ কোটি টাকা দান করেছেন। তারপরেও নেট মাধ্যমে তার দিকে কটাক্ষ ছুড়ছেন অনেকেই। কিন্তু এবার আর চুপ করে থাকেননি বিগ বি।

কটাক্ষকারীদের প্রমাণ সহ যোগ্য জবাব দিলেন। ২ কোটি টাকা দানের পরেও বিগত বছর থেকে করা সমস্ত সাহায্যের হিসেব এবার তিনি মেলে ধরলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এক মাস দিনমজুরদের খাওয়ার বন্দোবস্ত করেছেন।

চিকিৎসকদের জন্য পিপিই কিটের ব্যবস্থা করেছেন। ভিন রাজ্যে আটকে পড়া শ্রমীকদের বাড়ি ফিরিয়ে দিতে সাহায্য করেছেন। বাস সহ গোটা ট্রেন ভাড়া করে তাদের বাড়ি ফিরতে সাহায্য করেছেন।

তিনি ২৮০০ যাত্রীর একটি ট্রেন মাঝপথে বন্ধ হয়ে গেলে তাদের জন্য বিমানের ব্যবস্থাও করেছেন। মা বাবা হারা দুই শিশুকে দত্তক নিয়েছেন৷ এছাড়াও ৩০০ বেডের কোভিড কেয়ার সেন্টার তৈরি করেছেন।

কিন্তু এগুলি তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনোদিন প্রকাশ করেননি৷ তবে এবার সমস্ত তথ্য প্রকাশ করে তিনি লিখেছেন, “ছোট থেকেই শিখেছি দান করলে সেটা প্রচার করতে নেই। এতে যিনি সাহায্য পাচ্ছেন তিনিও অসম্মানিত হন।

কিন্তু এখন সময় বদলে গিয়েছে। এখন কোনোকিছু করলে তা সকলের সামনে প্রচার করতে হয়। নাহলে মানুষ ভাবে কাজের কিছুই করছি না কিন্তু মুখে কথা বলছি। এই দানের তালিকা প্রকাশ করতে গিয়ে লজ্জিত বোধ করছি”।

Leave a Reply

Your email address will not be published.