পুকুরে অদ্ভুত রকমের সাইকেল চালালেন যুবক, চালাতে গিয়ে ঘটল বিপত্তি, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

বর্তমান যুগ পুরোপুরিভাবে বৈজ্ঞানিক যুগ। প্রায় প্রতিদিনই নিত্যনতুন আবিষ্কারে পৃথিবীর রয়েছে সক্রিয়। যুগের পর যুগ ধরে বিজ্ঞান ক্রমশ উন্নতি লাভ করেছে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, পৃথিবীর প্রথম কম্পিউটার যন্ত্রটি ছিল একটি বিশাল বড় ঘরের মতো বড়, কিন্তু এখন বিবর্তনের ফলে কম্পিউটার ছোট হাতের তালুর মধ্যে এসে গেছে।

শুধু তাই নয়, আগে মানুষের যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে শুধুমাত্র চিঠি ছাড়া আর কোন বিকল্প ছিলনা। বর্তমানে স্মার্টফোনে দৌলতে তা এখন হয়ে গেছে সহজলভ্য। গ্রামাঞ্চলেও স্মার্টফোন আজকাল প্রায় প্রতিটি মানুষের ঘরে ঘরে দেখা যায়।

স্মার্টফোনের শুধু কথা বলা নয়, এর মাধ্যমে অনলাইন ক্লাসও চলছে বর্তমানে। কাউকে দেখার ইচ্ছা হলে শুধুমাত্র একটি ভিডিও কলে স্মার্টফোন দেখিয়ে দেবে তাকে।

সুতরাং এই ভাবেই বিজ্ঞানের গতিতে এগিয়ে চলেছে বিশ্ব। সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা প্রায় প্রতিদিনই নানারকম আবিষ্কারের ভিডিও ভাইরাল হতে দেখি।

কিছুদিন আগেই ভাইরাল হয়েছিল এক ভদ্রলোকের ড্রোনের মাধ্যমে হেলিকপ্টার তৈরি করার কথা। সেক্ষেত্রে ভদ্রলোক একটি চেয়ারের সঙ্গে অনেকগুলো ড্রোন বেঁধে প্রায় কিছু ফুট পর্যন্ত ওড়াতে সক্ষম হয়েছিলেন, কিন্তু এখনো পর্যন্ত তাতে অনেক পরিবর্তন করা দরকার।

সম্প্রতি ভাইরাল হলো এমনই একটি ভিডিও। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, এক যুবক টায়ার এর সাথে প্লাস্টিক বেঁধে তাকে জলে চালানোর চেষ্টা করছে।

জলের উপর পরিবাহী যান আবিষ্কার করার চেষ্টা অনেকদিনের। যদিও বিদেশে এই নিয়ে অনেক রিসার্চ হচ্ছে কিন্তু আবিষ্কারের দিক দিয়ে আমাদের দেশও কিন্তু কিছু কম নয়।

এর আগেও ভাইরাল হয়েছিল এক কৃষকের একটি জলের উপর চালানো যায় এমন একটি সাইকেল আবিষ্কারের কথা, কিন্তু তাতে কিছু ত্রুটি থাকায় তার উপর এখনো কাজ চলছে। ভাইরাল এই ভিডিওতে ট্যাগ এর সাথে প্লাস্টিক পেতে চালানোর চেষ্টা করলেওকিছুদুর গিয়ে যানটি জলে ডুবে যায় এবং যুবকটি জলে পড়ে যায়।

সম্ভবত প্লাস্টিক ও টায়ারের মেলবন্ধন টি আরো অনেক ত্রুটি মুক্ত করা দরকার, তবে এই অদ্ভুত চেষ্টা দেখে দর্শক দারুন মজা পেয়েছেন। বিশেষ করে টায়ার এর সাথে প্লাস্টিক বেঁধে জলে চালানোর চেষ্টা হাসিয়েছে সবাইকে।

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় হয়ে গেছে ভাইরাল। ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে বেনিওয়াল গেমিং ওয়াই টি নামে একটি অফিশিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে। হাজার হাজার মানুষ ভিডিওটি লাইক করেছে। ভিডিওটি দারুন মজা দিয়েছে সবাইকে।

ভিডিওটি দেখে হাসতে হাসতে পাগল হয়ে গেছেন দর্শক। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায়ই এরকম ভিডিও ভাইরাল হতে দেখি আমরা। নানারকম হাস্যকর ভিডিও আমাদের মনকে আনন্দ দেয়।

তবে এটি ভুললে চলবে না অনেক ছোট ছোট আবিষ্কার এবং ভুলত্রুটির মাধ্যমে কিন্তু বড় আবিষ্কার হতে পারে। সে ক্ষেত্রে প্রত্যেকের কাজকেই আমাদের উৎসাহ দেয়া উচিত। তবে দেশের উন্নতি সম্ভব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.