গোলাপি শাড়ি, খোলা চুলে তুমুল নাচ নাচল যুবতী বৌদি, ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

বর্তমান যুগের মেয়েরা ছেলেদের থেকে কোন দিক থেকে পিছিয়ে নেই। লেখাপড়া চাকরি ঘর-সংসার সামলানো সবকিছুতেই মেয়েরা অনন্যা। বলা হয় মেয়েদের “দশোভূজা”, একদিকে সে যেমন নিজের ঘর সংসার সামলায়,

তেমনি অন্যদিকে তার চাকরি এবং বাইরের পরিবেশটাও সামলানোর ক্ষমতা রাখে। সকালে উঠে যখন বাড়ির সকলের জন্য সে সব কাজ করে সবাইকে রেডি করে তেমনি সকল এসে সে নিজেও রেডি হয়ে অফিসে যায়,

আবার সারাদিনই সন্ধ্যের পর সবার বাড়ি ফেরার পর নিজে বাড়ি ফিরে প্রত্যেকের জন্য কাজ করে প্রত্যেকের জন্য খাবার রান্না করে তবেই সে নিজের কাজ করার সময় পায়। তার পরেই তার কপালে ঘুম জোটে। মেয়েরা সত্যিই অনন্যা।

মেয়েদের বিয়ের পর থেকেই তাদের সমস্ত সখ ত্যাগ করতে হয়। ঘর সংসার সামলাতে সামলাতেই তাদের সমস্ত সুপ্ত ইচ্ছা গুলো অপূর্ণ থেকে যায়। কিন্তু বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আজ অনেক গৃহবধূ এগিয়ে এসে তাদের প্রতিভা প্রদর্শন করতে পারছেন বিশ্বের সামনে।

এমনকি কোনো কোনো ঘটনা ক্যামেরায় আবদ্ধ হয়ে যায়, যা চারিদিকে হয়ে যায় ভাইরাল। সম্প্রতি একটি ভাইরাল ভিডিও তে আমরা দেখতে পাচ্ছি, এক গৃহবধূ শাড়ি পড়ে একটি বলিউডি গানে নাচ করছেন উদ্দাম।

গানটি হল “সজনজি ঘার আয়ে”। গানটি বিখ্যাত সিনেমা “কই মিল গেয়া”র অংশ, সিনেমাটিতে অভিনয় করেছিলেন কিংবদন্তি অভিনেতা শাহরুখ খান রানী মুখার্জি এবং কাজল। মহিলাকে দেখেই বোঝা যাচ্ছে তিনি কোনো প্রফেশনাল ডান্সার নন।

সম্ভবত জায়গাটি একটি বিয়ে বাড়ি বিয়ে বাড়িতে দাঁড়িয়ে এই গানের তালে তালে তিনি উদ্দাম নাচতে শুরু করেছেন। তার নাচ দেখে মুগ্ধ হয়ে গেছে দর্শক। তার এনার্জি সকলের মন কেড়ে নিয়েছে। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় হয়ে গেছে ভাইরাল।

ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে আকাশ নামে একটি ফেসবুক প্রোফাইল থেকে। হাজার হাজার মানুষ ভিডিওটি লাইক করেছে। কমেন্ট বক্সে সবাই মহিলার প্রশংসায় পঞ্চমুখ। তার নাচের স্টেপ গুলি মুগ্ধ করেছে সকলকে।

এই ভাবেই আনন্দে থাকেন এই আশাই করি আমরা। এইভাবে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সকলে তাদের প্রতিভাকে বিশ্বের সামনে প্রদর্শন করতে পারছে।

বর্তমানে গৃহবধূরাও ঘরে বসেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সারা পৃথিবীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয়েছে। এই ভাবেই বহু সুপ্ত প্রতিভা আজ হয়েছে বিকশিত। সোশ্যাল মিডিয়া এবং তার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের জানাই সাধুবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.