আশ্চর্যকর ঘটনা! একটি আস্ত বড় ষাঁড়ের সঙ্গে ল’ড়াই করছে একটি খুদে শিশু, ঝড়ের গতিতে ভিডিও ভাইরাল

বর্তমানে পৃথিবীর খবর জানার জন্য একমাত্র মাধ্যম হলো সোশ্যাল মিডিয়া। পৃথিবীর নানা অদ্ভুত আ’শ্চ’র্য ঘটনাবলী আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে দেখতে পারি ও জানতে পারি।

এমনকি সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগিয়ে অনেক মানুষ তার সুপ্ত প্রতিভা কে বিশ্বের সামনে আনার সুযোগ পান। আমাদের দেশের কোন কোন এমন অনেক প্রতিভা আছে যারা উপযুক্ত সুযোগের অভাবে সুপ্তই থেকে যান,

কিন্তু আজকাল সোশ্যাল মিডিয়া সেই অসুবিধা দূর করেছে। আজকাল সোশ্যাল কিশোর কিশোরী ও যুবক যুবতীদের প্রাধান্য বেশি। নাচ গান প্রভৃতি ভিডিওর সাথে সাথে নানারকম অদ্ভুত ঘটনাও ভাইরাল হতে দেখা যায়,

যা দেখে আমরা সত্যিই অবাক হয়ে যাই। পশুপাখিদের নিয়েও অনেক ভিডিও ভাইরাল হতে দেখা যায় সোশাল মিডিয়াতে। পশুপাখিদের সমাজে এমন অদ্ভুত অদ্ভুত কিছু কার্যকলাপ দেখা যায়, যা সত্যিই বিচিত্র।

এমনকি কিছু কিছু পশুপাখির মজাদার আচরণ আমাদের সত্যি হাসিয়ে দেয়, আবার কিছু কার্যকলাপ সত্যিই শিক্ষামূলক। প্রতিটি পশুপাখির নিজস্ব অনুভূতি ও ভালোবাসা আছে,তারা মানুষের মতো তা হয়তো মুখে ব্যক্ত করতে পারে না,

কিন্তু তাদের ভালোবাসা সত্যিই বিশ্বস্ত। কিন্তু বর্তমানে মানুষের অত্যাচারে পশুপাখির বিভিন্ন প্রজাতি বিলুপ্ত হতে চলেছে। দিনের পর দিন বন কেটে ফেলা, পুকুর বুজিয়ে ফেলা, প্রভৃতি কারণে বহু পশু পাখি আজ বিলুপ্ত প্রায়।

কিন্তু তাও এমন কিছু মানুষ পৃথিবীতে আজও আছেন যারা সত্যিই পশু-পাখিকে সংরক্ষণের চেষ্টা করেন। সম্প্রতি একটি ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি বাচ্চা ছেলে একটি ষাঁড়ের সিং ধরে টানাটানি করছে।

সিংটি ধরে সে একবার বাম দিকে টানছে, একবার ডান দিকে টানছে, কখনোবা চেপে বসেছে তার মাথার উপর। কিন্তু ষাঁড়টি নিজের মনে খেয়ে চলেছে, সে বাচ্চাটির দিকে ভ্রুক্ষেপ করছে না।

দেখে যেন মনে হচ্ছে সে বাচ্চাটির এই খেলা উপভোগ করছে। কিন্তু যদি সে কোন ভাবে রেগে গিয়ে বাচ্চাটির দিকে তেড়ে যায় এবং সিংটি তার পেটে ঢুকিয়ে দেয়, তাহলে বাচ্চাটি কে বাঁচানো মুশকিল হবে। ভিডিওটি দেখে দর্শক স্তম্ভিত হয়ে গেছেন।

ভিডিওটি দেখেই বোঝা যাচ্ছে তাদের মধ্যে রয়েছে ভালোবাসার বন্ধন, তারা দুজনেই দুজনের বন্ধু। সম্ভবত দুজনেই ছেলেবেলা থেকে একই বাড়িতে মানুষ হয়েছে তাই দুজনের মধ্যে এত ভালোবাসা। ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় হয়ে গেছে ভাইরাল।

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় হয়ে গেছে ভাইরাল। ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে “ওয়েলকাম তামিলিয়ান” নামে একটি অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে। প্রায় লাখ লাখ মানুষের ইতিমধ্যেই ভিডিওটি দেখে ফেলেছেন।

1 লাখের মতো মানুষ লাইক করেছেন ভিডিওটি। 800 জনের মত মানুষ কমেন্ট করেছেন ভিডিওটিতে। সবাই ষাঁড়টির ব্যবহার দেখে মুগ্ধ হয়ে গেছেন। প্রকৃত বল শালী কখনোই দুর্বলের উপর তার বলপ্রয়োগ করে না, সে জানে কোথায় কোথায় বল প্রয়োগ করতে হয়।

আজ অধিকাংশ মানুষ যে ব্যবহার জানে না, আজকে এই অবলা পশু সেটি করে দেখিয়ে দিল। ষাঁড়টিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সবাই। সোশ্যাল মিডিয়ার প্রায় সময়ই নানারকম ভিডিও ভাইরাল হয়। বর্তমান যুগ বিজ্ঞানের যুগ।

বিজ্ঞান এর প্রভাবে আজ সবকিছুই চলে এসেছে আমাদের হাতের মধ্যে। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়ার ডিজিটালাইজেশন উন্নত করেছে। মানুষের মাধ্যমে ঘরে বসে ব্যাবসা বাণিজ্য লেখাপড়া সবকিছুই করছেন।

এমনকি যে কোনো খবর, খেলা ধুলা সবকিছুই আজকাল আমরা ফোনের মধ্যেই দেখে নিতে পারি। সোশ্যাল মিডিয়া এবং তার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের জানাই সাধুবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.